রাবির মনোবিজ্ঞান বিভাগে দু’দিনব্যাপি প্রথম পুনর্মিলনি শুরু

আপডেট: জানুয়ারি ১৮, ২০২০, ১:২৩ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক


উদ্বোধন করেন রাবি উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যসহ শিক্ষক ও সাবেক শিক্ষার্থীরা সোনার দেশ

রাজশাহী বিশ^বিদ্যায়ে (রাবি) মনোবিজ্ঞান বিভাগের দুই দিনব্যাপি প্রথম পুনর্মিলনি অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মুহাম্মদ কুদরাত-এ খুদা একাডেমিক ভবনে পুনর্মিলনি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান।
পরে বিভাগের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।
এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য উপাচার্য বলেন, মনোবিজ্ঞান বিভাগের এই পুনর্মিলনি অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সকল নতুন ও পুরাতন গ্রাজুয়েটদের মধ্যে একটি মেলবন্ধন তৈরি হবে যা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। দৈনন্দিন জীবনে মানসিকভাবে সুস্থ থাকার মনোবিজ্ঞানচর্চার প্রয়োজন রয়েছে। আমাদের এ সমাজে শিক্ষিত মানুষের অভাব নেই তবে বিদ্বান লোকের বড়ই অভাব। বর্তমান সময়ে দেশ ও জাতির কল্যাণে সুশিক্ষিত হওয়ার কোনো বিকল্প নেই।
তিনি আরো বলেন, বিভাগটির প্রথম পুনর্মিলনি অনুষ্ঠানে একটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গঠন করা হবে। অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের মাধ্যমে একটি বিভাগের উন্নয়ন হয়। আর একটি বিভাগ উন্নত হলে সেটি বিশ্ববিদ্যালয়েরই উন্নয়ন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাচীনতম বিভাগগুলোর মধ্যে মনোবিজ্ঞান বিভাগ অন্যতম। যে বিভাগটি গত ছয় দশকের অধিককাল ধরে অনেক প্রথিতযশা মনোবিজ্ঞানী, শিক্ষক ও গ্রাজুয়েট তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।
মনোবিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি ও ১ম পুনমিলনী উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এনামুল হক এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন প্রথম পুনর্মিলনি সাংগঠনিক কমিটির সদস্য সচিব ড. মো. মাসুদুল হক সিদ্দিকী।
এদিকে অনুষ্ঠানে অধ্যাপক মোহাম্মদ রওশন আলী এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ খালেকুজ্জামানকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। এই আয়োজনে অন্যদের মধ্যে সাবেক উপ-উপাচার্য ও বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষক অধ্যাপক মুহম্মদ নূরুল্লাহ্, বিভাগীয় শিক্ষক, প্রক্টর অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান, বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
পুনর্মিলনীর কর্মসূচিতে শোভাযাত্রা, প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছাড়াও Rajshahi University Psychology Alumni Association (RUPAA) গঠন করা হয়। বিভাগের অধ্যাপক মুর্শিদা ফেরদৌস বিনতে হাবিব পুনর্মিলনি অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ