রাবির মেডিকেল সেন্টারে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ

আপডেট: অক্টোবর ১৮, ২০১৬, ১১:৪৮ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) মেডিকেল সেন্টারে ভুল চিকিৎসায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার অভিযোগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। মেডিকেল সেন্টারের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. আনোয়ার হোসেনের ভুল চিকিৎসায় চোখের রোগ আরো বেড়ে গেছে বলে অভিযোগ ওই শিক্ষার্থীর। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ওই চিকিৎসকের প্রত্যাহার ও তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন ওই শিক্ষার্থী। ভুক্তভোগী প্রসেনজিত কুমার বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।
লিখিত অভিযোগে প্রসেনজিত উল্লেখ করেন, চোখের এলার্জীজনিত কারনে গত ১ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালযের মেডিকেল সেন্টারের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আনোয়ার হোসেনের সরণাপন্ন হলে আমাকে প্রায় একহাজার টাকার ঔষধ ব্যবহার করার পরামর্শ দেন। ওই ঔষুধ ব্যবহারের ফলে ১০ অক্টোবরের দিকে আমার চোখে আরো বেশি সমস্যা দেখা দেয়। আমি পুনরায় তার কাছে গেলে তিনি আবার ওই ঔষধ ব্যবহার করতে বলেন। ১৪ অক্টোবর চোখ অনেক বেশি ফুলে ওঠে ও লাল হয়ে যায়। পরদিন তার কাছে গেলে তিনি পূর্ববর্তী ঔষধ ব্যবহার করতে নিষেধ করেন এবং নতুন  ঔষুধ দেন। ওই ঔষধ ব্যবহারের ফলে চোখের অবস্থার আরো অবনতি হয়। পরদিন সকালে পুনরায় তার কাছে গেলে আগের ঔষধের সঙ্গে আরো দুটি ড্রপ ব্যবহার করতে বলেন। কিন্তু চোখের অবস্থার ক্রমাগত অবনতি হতে থাকে।
অভিযোগপত্রে অবিলম্বে ওই চিকিৎসককে মেডিকেল সেন্টার থেকে প্রত্যাহার করে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানানো হয়।
এ বিষয়ে জানতে ডা. আনোয়ার হোসেনের সাথে টেলিফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন রিসিভ হয় নি।
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের প্রধান চিকিৎসক ডা. তবিবুর রহমান শেখ বলেন, ছেলেটি অভিযোগ করার আগে আমার কাছে বলতে পারতো। বিষয়টি ভালভাবে শুনে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা মিজানুর রহমান বলেন, মার্কেটিং বিভাগের প্রসেনজিৎ নামে একটা ছেলে আমার কাছে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ করেছে। বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি।