রাবি শিক্ষককে লাঞ্ছনা : অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কারসহ তিন দফা দাবি

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২, ১১:১০ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক:


নিজ বিভাগের শিক্ষককে লাঞ্ছিত করায় ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে সংবাদ সম্মেলন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস বিভাগের শিক্ষার্থীরা। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের পেছনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা আবু সিনহা সৌমিককে বহিষ্কারসহ তিনদফা দাবি জানান তারা। পরে একই দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেন শিক্ষার্থীরা।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো- ভিডিও ফুটেজ দেখে তদন্ত সাপেক্ষে জড়িত অন্যান্য শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা এবং আন্তঃবিভাগ প্রতিযোগিতার যেকোনো খেলা চলাকালীন নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আল আমিন বলেন, ‘রবিবার আন্তঃবিভাগ ফুটবল প্রতিযোগিতার অংশ হিসেবে আমাদের বিভাগ বনাম আইবিএ খেলার টাইব্রেকারের সময় রেফারির সিদ্ধান্তকে উপেক্ষা করে আইবিএ-র শিক্ষার্থীরা বাকবিত-ার সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে আইবিএ এর শিক্ষার্থীরা আমাদের প্রতি আক্রমণাত্মক আচরণ শুরু করলে আমাদের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মোইজুর রহমান তাদেরকে শান্ত হতে অনুরোধ করেন। কিন্তু তারা শান্ত না হয়ে আরও বেশি উচ্ছৃঙ্খল আচরণ শুরু করে এবং একপর্যায়ে আইবিএ-র ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আবু সিনহা সৌমিক স্যারের কলার চেপে ধরে কয়েক মিনিট যাবৎ টানাহেঁচড়া করতে থাকে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এ সময় আমরা শিক্ষার্থীবৃন্দ স্যারকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করলে তারা আমাদের উপর হামলা চালায়। যে হামলায় প্রথম বর্ষের প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী টুটুলকে নির্দয়ভাবে মাটিতে ফেলে পেটাতে ও পদদলিত করতে থাকে এবং উৎপল, জুনায়েদ তন্মসসহ আরো অনেককে আহত করে। এছাড়াও মেয়েদের উপর তারা হামলা করতে গেলে কোনোরকমে আমরা আমাদের স্যারকে নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করি।’
এবিষয়ে প্রধান অভিযুক্ত আবু সিনহা সৌমিকের সাথে যোগাযোগ করলে, তিনি ব্যস্ত আছেন এবং সন্ধ্যায় কল দিবেন বলে জানান।
গত রোববার বেলা ১১টায় শহীদ হবিবুর রহমান হল সংলগ্ন মাঠে আন্তঃবিভাগ ফুটবল টুর্নামেন্টে ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট ও ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিভাগের মধ্যে খেলা ছিল। এ সময় রেফারির বাঁশির ফুঁ পড়ার আগেই গোলবার লক্ষ্য করে বলে আঘাত করে ভেটেরিনারি অ্যান্ড এনিমেল সাইন্স বিভাগের শিক্ষার্থী। তবে গোলরক্ষক বলটি গোল হওয়া থেকে রক্ষা করে।

অপরদিকে রেফারি নির্দেশ দেয়ার আগেই বলে কিক করায় তা বাতিল করা হয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয় এবং এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে ভেটেরিনারি অ্যান্ড এনিমেল সাইন্স বিভাগের শিক্ষক উপস্থিত হলে তিনি লাঞ্ছনার শিকার হন। এ ঘটনার পর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শিক্ষককে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদ ভবনের প্রধান ফটকে তালা লাগিয়ে বিক্ষোভ করেন ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ