রামেক ইন্টার্ন চিকিৎসকদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ ।। ১৫ দিনের আলটিমেটাম

আপডেট: নভেম্বর ২১, ২০১৬, ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক 


   
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসকদের কর্তব্যে অবহেলা ও রোগীদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত ইন্টার্ন  চিকিৎসকদের দুর্ব্যবহারের প্রতিবাদে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০ টায় বিক্ষোভমিছিলটি নগরীর অলকার মোড় থেকে বের হয়ে সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়। এরপর প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় বক্তারা বলেন, চিকিৎসার নামে চিকিৎসকদের দুর্ব্যবহার, ভুল চিকিৎসা ও চিকিৎসার নামে বাণিজ্য বন্ধ করা না হলে সহসায় বৃহত্তর আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তোলা হবে। প্রয়োজনে হাসপাতাল ঘেরাও করার ঘোষণা দেয়া হয়। একই প্রতিবাদ সভা থেকে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বর্তমান সন্ত্রাসী কর্মকা- বন্ধের দাবি, রোগীর স্বজনদের ওপর চিকিৎসকদের সশস্ত্র হামলা, বিনা কারণে রোগীর স্বজনদের গ্রেফতার করে পুলিশে সোপর্দ ও হয়রানী বন্ধের অহ্বান জানিয়ে রোগীর প্রতি সহনশীল আচরণ করার দাবি জানানো হয়।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা, খাদ্যে দূর্নীতি, ওষুধ চুরি, নার্স কর্মচারীদের অশুভ আচরণ ও দোসি ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা না হলে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে বৃহত্তর আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তোলা হবে।
রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সহসভাপতি ও রাজশাহী চেম্বারের পরিচালক হারুনার রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন, রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান, সাংগাঠনিক সম্পাদক দেবাশিষ প্রামাণিক দেবু, বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, আইনজীবী সমিতির নেতা অ্যাডভোকেট এন্তাজুল হক বাবু, রেস্তোরা মালিক সমিতির সভাপতি রিয়াজ আহমেদ খান, রাজশাহী উদীচীর সদস্য মিনহাজ উদ্দিন মিন্টু, পবা উপজেলা জাপার সভাপতি আব্দুল মালেক, অধ্যাপক জিএম হারুন, নারী উদ্যোক্তা উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ডা. সেলিনা খাতুন, রাজশাহী মহিলা চেম্বারের সহসভাপতি সাগরিকা, সাংবাদিক আফরোজা খানম হেলেন, মানবাধিকার কর্মী আইয়ুব আলী তালুকদার, যুবমৈত্রী নেতা শাহীন শেখ, জেলা লোকমোর্চার সাধারণ সম্পাদক বেলাল আহমেদ, পরিবেশক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।
প্রতিবাদ সামাবেশে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান চিকিৎসাসেবায় চিকিৎসকদের ব্রত হয়ে মানুষের সেবা করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, বর্তমানে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসক নামধারী মাস্তানদের সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। তারা চিকিৎসাসেবার শপথ নিয়ে ভুল চিকিৎসা দিচ্ছে। রোগীদের ওপর আক্রমণ করছে। সাংবাদিকদের হাসপাতালে প্রবেশে বাধার সৃষ্টি করছে। এ অবস্থা চলতে পারেনা উল্লেখ করে জামাত খান বলেন, আগামী ১৫ দিনের মধ্যে রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাসেবার পরিবেশ ফিরিয়ে না আনা হলে, সন্ত্রাসী ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে শান্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদ রাজশাহীর সর্বস্তরের মানুষকে নিয়ে হাসপাতাল ঘেরাওসহ সর্বাত্মক আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলবে। প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে বক্তারা বলেন, চিকিৎসা মানুষের মৌলিক অধিকার। সরকার কোটি কোটি টাকা চিকিৎসাখাতে ব্যয় করছে। তবে কতিপয় চিকিৎসক সিন্ডিকেট করে অবৈধ বাণিজ্যে লিপ্ত রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ