রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় লতা মঙ্গেশকরকে শেষ বিদায়

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২২, ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


সুরসম্রাজ্ঞী ভারতরত্ন লতা মঙ্গেশকরের অন্তেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। মুম্বাইয়ের শিবাজি পার্কে সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন শেষ সেখানেই এই কোকিলকণ্ঠীর দাহকাজ সম্পন্ন হয়।

লতা মঙ্গেশকরের বড় ভাইয়ের ছেলে আদিত্য মঙ্গেশকর তার মুখাগ্নি করেন।
দীর্ঘ সাত দশক ভারতীয় উপমহাদেশের সংগীতানুরাগীদের সুরের মায়াজালে বেঁধে রাখা কিংবদন্তি শিল্পী লতা মঙ্গেশকর রোববার চিরবিদায় নেন। তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর।

কোভিডে আক্রান্ত হয়ে প্রায় চার সপ্তাহ মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন এই শিল্পী। রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

হাসপাতাল থেকে লতা মঙ্গেশকরের মৃতদেহ প্রথমে তার বাড়ি ‘প্রভুকুঞ্জে’ নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে শেষ বিকালে শিবাজি পার্কের দিকে শবযাত্রা শুরু হয়।

লতা মঙ্গেশকরের বোন ভারতের সংগীত জগতের আরেক কিংবদন্তি আশা ভোশলে, উষা মঙ্গেশকরসহ মঙ্গেশকর পরিবারের সদস্যরা শিবাজি পার্কের পথে তার সঙ্গী হন।

প্রায় আট কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে স্থানীয় সময় পৌনে ৬টার দিকে ভারতের জাতীয় পতাকায় ঢাকা লতা মঙ্গেশকরের মৃতদেহ শিবাজি পার্কে পৌঁছায়। সেখানে দুপুর থেকেই হাজার হাজার ভক্ত তাদের প্রিয় লতাদি কে শেষবিদায় জানাতে অশ্রুসিক্ত নয়নে অপেক্ষায় ছিলেন। পার্কে বাজছিল লতা মঙ্গেশকরের গাওয়া কালজয়ী সব গান।

লতা মঙ্গেশকরকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে সাধারণ মানুষ, রাজনীতিক, বলিউডের তারকারা একে একে শিবাজি পার্কে যান।
সর্বস্তরের জনগণের শেষশ্রদ্ধা জ্ঞাপনের জন্য লতা মঙ্গেশকরের মৃতদেহ এক ঘণ্টার কিছু বেশি সময় শিবাজি পার্কে রাখা হয়।
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শিবাজি পার্কে গিয়ে লতা মঙ্গেশকরের মৃতদেহে শেষ শ্রদ্ধা জানান। ভারতরত্ন লতার শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ দিতে বিকালেই তিনি মুম্বাই উড়ে যান।

প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন শেষে একে একে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে, এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার, গীতিকার জাভেদ আখতার, ড্রিম গার্ল হেমা মালিনী, ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার, বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খান, অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুর ও বিদ্যা বালান, গায়িকা অনুরাধা পাড়োয়ালসহ আরো অনেকে প্রিয় লতাদি’র মৃতদেহের প্রতি শেষশ্রদ্ধা জানান।

সবার শ্রদ্ধা জ্ঞাপন শেষে ভারতের তিন বাহিনীর সদস্যরা লতা মঙ্গেশকরের মৃতদেহের প্রতি রাষ্ট্রীয় সম্মান জানান এবং তার পরিবারের হাতে জাতীয় পতাকা তুলে দেন।

তার পরপরই হিন্দু রীতি মেনে দাহকাজের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।
লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে ভারতে দুই দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। সর্বকালের অন্যতম সেরা এই সংগীত শিল্পীর সম্মানে ভারতের জাতীয় পতাকা দুই দিন অর্ধনমিত রাখা হবে।

শোক প্রকাশ করে সোমবার অর্ধদিবস ছুটি ঘোষণা করেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার। আগামী ১৫ দিন রাজ্যে বাজবে লতার গাওয়া গান।

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে হাজারের বেশি সিনেমায় গান করেছেন লতা। ভারতের ৩৬টি আঞ্চলিক ভাষার পাশাপাশি বিদেশি ভাষাতেও তিনি গান করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ছবি দিয়ে, তার সঙ্গে স্মৃতির কথা লিখে, কিংবা তার কাছে অনুপ্রেরণা পাওয়ার কথা জানিয়ে শোক প্রকাশ করছেন ভারতের বিভিন্ন অঙ্গনের প্রতিনিধিরা।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ