রাসিকের অভিযান, ভোগান্তিতে জনগণ

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০১৭, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



নগরীতে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে অভিযান পরিচালনা করেছে রাজশাহী সিটি করপোরেশন। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে জনগণ। অভিযানের ফলে নগরীতে যানবাহন কম ছিলো। যানবাহনের জন্য মোড়ে মোড়ে যাত্রীদের দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়েছে। যানবাহন না পাওয়ায় অনেক সময় যাত্রীদের অতিরিক্ত ভাড়া গুণে নির্দিষ্ট গন্তব্যে যেতে হয়েছে।
গতকাল রোববার সকালে নগরীর গুরুত্বপূর্র্ণ সড়কে এ অভিযান পরিচালিত করে সিটি করপোরেশন। এর আগে নগরীতে প্রচারপত্র, বিজ্ঞাপন ও মাইকিং করে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের ঘোষণা দেয় রাসিক। রাসিকের পক্ষ থেকে বলা হয়, ২০১৭ সালের প্রথম দিন থেকে নগরীতে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধ করে দেয়া হবে। এরই অংশ হিসেবে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।
এদিকে অভিযানের সময় ব্যাটারিচালিত রিকশার মালিক ও চালকরা বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে। বিষয়টি নিরসনের জন্য তারা নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সঙ্গেও দেখা করেন। ব্যাটারিচালিত রিকশা মালিক ও চালকদের পক্ষ থেকে বলা হয়, ব্যাটারিচালিত রিকশা অনেক শ্রমিকের রুটি-রুজির ব্যবস্থা করেছে। এই গাড়ি তুলে দেওয়া হলে খেয়ে-পড়ে বাঁচবো কীভাবে, সংসার চলবে কীভাবে। তারা বিষয়টি নিরসনের আহ্বান জানিয়েছেন।
নগরীর উপশহর নিউ মার্কেটের নিকটে দাঁড়িয়েছিলেন উপশহর নিবাসী তানভীর হায়দার। তিনি বলেন, জরুরি প্রয়োজনে আমার দ্রুত সাহেববাজার যাওয়া দরকার। অথচ রাস্তায় বেশি যানবাহনই দেখছি না। এই রাস্তা থেকে আবার অটোরিকশাও যায় না। অনেকক্ষণ অপেক্ষা করার পর পা চালিত রিকশা পেলেও অতিরিক্ত ভাড়া চাওয়ায় যাওয়া সম্ভব হয় নি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ