রুশিনা মারফাতিয়ার পথে হাঁটলেন আমেদাবাদের নারীরা, তৈরি করলেন স্তনদুগ্ধের ব্যাঙ্ক

আপডেট: জানুয়ারি ৩, ২০২০, ১:০৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মাতৃদুগ্ধ প্রয়োজন। অথচ শিশুর আসল মা শরীর অসুস্থ থাকায় শিশুকে দুগ্ধপান করাতে অপারগ। অথবা অন্য যেকোনও কারণেই হোক, কোনও শিশুর মাতৃদুগ্ধ প্রয়োজন, অথচ যোগাড় করা সম্ভব হচ্ছে না। আর এই সমস্ত কথা মাথায় রেখেই এগিয়ে এলেন আমেদাবাদের এরকম ২৫০ নারী, যাঁরা কিনা শিশুদের দুগ্ধপান করাতে সক্ষম। ‘সুপারমম’ হিসেবে খ্যাত রুশিনা মারফাতিয়ার দেখানো পথ অনুসরণ করে যুক্ত হলেন অর্পন এমওএম (MOM) ব্যাঙ্কের সঙ্গে। ইতিমধ্যে ৯০ লিটার মাতৃদুগ্ধ জমাও পড়েছে সেখানে। অর্থাৎ তাই দিয়ে ৬০০ শিশুকে ১৫০ মিলি করে মাতৃদুগ্ধ পান করানো সম্ভব।
এর আগে এই কাজ করেছিলেন রুশিনা মারফাতিয়া। তিনি বুঝতে পেরেছিলেন, তাঁর ছেলেকে মাতৃদুগ্ধ খাওয়ানোর পরেও অনেকটা দুধ নষ্ট হচ্ছে। তাই তিনি ছোট ছোট শিশুদের কথা ভেবে সেটি জমানোর চিন্তাভাবনা করেন। এরপরই একটি উইল তৈরি করেন। আর সেটি অনুযায়ীই ৬০০ গ্রাম থেকে এক কেজি ওজনের সদ্যোজাত শিশুদের সেই দুধ খাওয়ানো হয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশ শিশুই আইসিইউতে ভর্তি ছিল। তারপর থেকেই ওই নারী ‘সুপারমম’ নামে খ্যাত। আর তাঁর দেখাদেখি শুধু আমেদাবাদ নয়, তামিলনাড়ুতেও দুইজন নারী এরকম মাতৃদুগ্ধের ব্যাঙ্ক খুলেছেন।
তথ্যসূত্র: আজকাল

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ