রুয়েটে শিক্ষকদের ধর্মঘট অব্যাহত || শিক্ষক সমিতির সঙ্গে প্রশাসনের বৈঠক আজ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৭, ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক



রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) ৩৩ ক্রেডিট প্রথা বাতিলের আন্দোলন চলাকালে শিক্ষকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারে জড়িতদের শাস্তি দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন অব্যাহত রেখেছেন শিক্ষকরা। গতকাল মঙ্গলবার শিক্ষক সমিতির সঙ্গে প্রশাসনের এ বিষয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। ফলে রুয়েটের ১৪টি বিভাগে কোনো সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষাও এদিন অনুষ্ঠিত হয়নি।
রুয়েট সূত্রে জানা যায়, ঘোষিত অনির্দিষ্টকালের কর্মসূচি পালনে মঙ্গলবার শিক্ষকরা ক্লাসে আসেন নি। পূর্বঘোষিত পরীক্ষাও বন্ধ রাখা হয়। তবে কর্মসূচির প্রথম দিনে শিক্ষকরা প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নিলেও দ্বিতীয় দিনে তাদেরকে অবস্থান নিতে দেখা যায়নি।
রুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নীরেন্দ্রনাথ মুস্তাফী বলেন, প্রশাসনের সঙ্গে আজ (মঙ্গলবার) দুপুরে শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দের বসার কথা ছিল। কিন্তু জাতীয় চার নেতার অন্যতম এএইচএম কামারুজ্জামানের সহধর্মিনীর নামাজে জানাযায় অংশ নিতে শিক্ষকরা সেখানে যাওয়ায় বৈঠক বাতিল হয়ে যায়। বুধবার (আজ) আমরা প্রশাসনের সঙ্গে বসব।
তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা যেভাবে শিক্ষকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার এবং সামাজিক মাধ্যমে বিদ্বেষ ছড়িয়েছে, তা ভালোভাবে নিতে পারছেন না শিক্ষকরা। প্রশাসনের মধ্যস্থতায় শিক্ষার্থীরা যদি শিক্ষকদের কাছে যৌক্তিক প্রক্রিয়ায় ক্ষমা চাই, তবে শিক্ষক সমিতি বিষয়টি ভেবে দেখবে।
রুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম বেগ বলেন, অনিবার্য কারণবশত শিক্ষক সমিতির সঙ্গে বৈঠক সম্ভব হয়নি, বুধবার আমরা বসব। সেখানে তাদের দাবি-দাওয়া শুনে, আলাপ-আলোচনা সাপেক্ষে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আশা করছি সব সংকট কাটিয়ে দ্রুত শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক করা সম্ভব হবে।
গত ২৮ জানুয়ারি থেকে ক্রেডিট প্রথা বাতিলের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অচল হয়ে পড়ে শিক্ষা কার্যক্রম। পরে রোববার দুপুরে শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেয় প্রশাসন। কিন্তু ভিসিসহ শিক্ষকদের শনিবার রাতভর কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা এবং দুর্ব্যবহারের অভিযোগ তুলে সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেন শিক্ষক সমিতি।

রফিকুল ইসলাম

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ