রূপপুর এনপিপি অঞ্চলে রসাটমের নানা কর্মসূচী

আপডেট: জুন ১২, ২০২৪, ৮:০৮ অপরাহ্ণ

শাহীন রহমান, পাবনা:


বিশ্ব পরিবেশ দিবস-২০২৪ নিয়ে কনশাস কনজামশন বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্য নিয়ে নির্মাণাধীন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের পার্শ্ববর্তী অঞ্চলগুলোতে নানা কর্মসূচী পালন করেছে রাশিয়ার রাস্ট্রীয় পরমাণু শক্তি সংস্থা রসাটম।

বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের সহযোগিতায় গত ৫ জুন থেকে ৮ জুন চারদিনব্যাপী কর্মসূচীতে পাবনা ও ঈশ্বরদী অঞ্চলে বিভিন্ন ইভেন্ট আয়োজিত হয়। কর্মসূচীর মাধ্যমে রসাটম টেকসই পরিবেশ ও সামাজিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে তাদের অঙ্গীকার তুলে ধরেছে।

ইভেন্টগুলোতে কনশাস কনজামশনের পাশাপাশি কার্বনমুক্ত এনার্জীর গুরুত্ব তুলে ধরা হয়। দেড় হাজারের অধিক স্থানীয় অধিবাসী এই কর্মসূচীতে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন।
কর্মসূচীর অংশ হিসেবে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কনশাস কনজামশন এবং রূপপুর এনপিপি’র ইকোলজির বৈশিষ্ট্যগুলো নিয়ে একটি সেমিনারের আয়জন করা হয়। শীর্ষস্থানীয় পরিবেশবিদরা সেমিনারে বক্তব্য রাখেন।

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম তার মন্তব্যে বলেন, “রসাটমের সঙ্গে যৌথভাবে আয়োজিত এই সেমিনারের মাধ্যমে আমাদের শিক্ষার্থীদের মাঝে পরিবেশ এবং পারমাণবিক শক্তি নিয়ে ভুল ধারণাগুলো অপসারিত হয়েছে। তারা কীভাবে আমাদের পরিবেশ ও ইকোলজি রক্ষা করা সম্ভব, তা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছে”।

রসাটমের সেমিনারের পর একইদিন ঈশ্বরদীর পারমাণবিক তথ্যকেন্দ্রে স্থানীয় স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে আলাদা একটি ইভেন্ট আয়োজিত হয়। এই ইভেন্টে বর্জ্য যেমন প্লাস্টিক বোতল ও খবরের কাগজ থেকে কীভাবে প্রয়োজনীয় ও সুন্দর সামগ্রী তৈরি করা সম্ভব, তা সম্পর্কে শিক্ষার্থীরা খাতা-কলমে প্রশিক্ষণ লাভ করেন।

ঈশ্বরদী সরকারি কলেজে আয়োজিত ‘ট্র্যাস টু ট্রেজার চ্যালেঞ্জ’ বিষয়ক একটি মজাদার গেইমে অংশগ্রহণকারীরা বিভিন্ন আইটেম থেকে নিজস্ব সৃজনশীলতা ব্যবহার করে বিভিন্ন সামগ্রী তৈরি করেন। একইদিন স্থানীয় স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য ‘আগামীকাল’ শীর্ষক একটি শিক্ষামূলক কার্টুন প্রদর্শন করা হয়। পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান ডঃ মুহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম কনশাস কনজামশন বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

কর্মসূচীর অন্যতম আকর্ষণ ছিল ঈশ্বরদীতে মঞ্চস্থ পরিবেশ বিষয়ক বিশেষ নাটক। নাটকের মাধ্যমে পরিবেশ সুরক্ষার গুরুত্ব এবং এনার্জীর পরিচ্ছন্ন উৎস হিসেবে পারমাণবিক প্রযুক্তির গুরুত্ব তুলে ধরা হয়।

এছাড়াও, ঈশ্বরদী পৌরসভা প্রাঙ্গনে স্থানীয় জনগনের জন্য পরিবেশবান্ধব সামগ্রীর একটি মেলাও আয়োজন করা হয়। স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য পাবনায় অবস্থিত ভিনটেজ ডেনিম কারখানা ভিজিটেরও আয়োজন করে রসাটম। কারখানাটি পরিবেশবান্ধব গ্রিন ফ্যাক্টরি হিসেবে পরিচিত।

‘কার্বনমুক্ত ভবিষ্যৎ’ বিষয়ে ১৫টি স্কুলের শিক্ষকদের মাঝে ম্যানুয়াল বিতরণ করা হয়। যাতে তারা নিজেরাই পরিবেশ বিষয়ে ইন্টারেক্টিভ সেশনের আয়োজন করতে সমর্থ হন।
এতমস্ত্রয় এক্সপোর্টের কম্যুনিকেশন্স বিভাগ প্রধান নিনা দেমেন্তসোভা তার মন্তব্যে বলেন, “পরিবেশ বিষয়টি এখন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের জেনারেল কন্ট্রাকটর হিসেবে এই বিষয়টি নিয়ে কাজ করাটা আমাদের দায়িত্ব বলে মনে করি। উপর্যুপরি তৃতীয় বছর আমরা এ জাতীয় কর্মসূচী পালন করে আসছি এবং জনগণের সক্রিয় অংশগ্রহণ আমাদেরকে অনুপ্রানিত করছে”।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version