রোগিবান্ধব চিকিৎসাসেবা কেন্দ্রে পরিণত কাজ করছে প্রশাসন : রামেক হাসপাতাল পরিচালক

আপডেট: মার্চ ২৩, ২০১৭, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালকে জন ও রোগিবান্ধব একটি উন্নত চিকিৎসাসেবা কেন্দ্রে পরিণত করতে নিরলসভাবে কাজ করছে হাসপাতালের বর্তমান প্রশাসন। গতকাল বুধবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও এটুআই প্রোগ্রাম’র সহযোগিতায় এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত সোসাল মিডিয়া সংলাপে অংশ নিয়ে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এএফএম রফিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।
রামেক হাসপাতালের পরিচালক বলেন, হাসপাতালে পরিচ্ছন্নতাকর্মীর সঙ্কট থাকায় রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলরদের সাথে মতবিনিময় করে হাসপাতালকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে ও জনসচেতনতা তৈরিতে সহযোগিতা চেয়েছি। হাসপাতালের পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার জন্য প্রতিদিন ১০জন করে পরিচ্ছন্নতা কর্মী দিয়ে এবং এবিষয়ে মহানগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে জনসচেতনতা তৈরির মাধ্যমে রাসিক সহযোগিতা করছে। এ বিষয়ে আমি নিজে প্রতি সপ্তাহে চারদিন করে রোগির অ্যাটেন্ডদের সাথে মতবিনিময় করছি। সেই সাথে প্রতিটি রোগির জন্য দু’টি করে বিনামূল্যে পাস দিয়ে হাসপাতালের অভ্যন্তরে রোগির অতিরিক্ত ভিজিটর কন্ট্রোল করা হয়েছে। হাসপাতালের নিরাপত্তার জন্য প্রতিটি গেটে নিরাপত্তা কর্মি দেয়া হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, যথাসময়ে ভর্তি রোগির চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে প্রতি শিফটে সব ওয়ার্ডে ইন্টার্নি চিকিৎসকের সাথে মিড লেবেল চিকিৎসক দেয়া হয়েছে। এছাড়াও প্রফেসরদের সান্ধ্যকালীন রাউন্ডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। হাসপাতালে দালাল ও রিপ্রেজেন্টেটিভ নিয়ন্ত্রণেও পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে পরিচালক জানান।
পরিচালক বলেন, চিকিৎসক, নার্স ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমন্বয়ে রামেক হাসপাতালকে জনবান্ধব ও রোগিবান্ধব একটি উন্নত চিকিৎসা সেবা কেন্দ্রে পরিণত করতে নিরলসভাবে কাজ করছি। সবার সহযোগিতায় এ হাসপাতাল রোগিদের কাঙ্খিত চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে পারবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন পরিচালক রফিকুল ইসলাম।
উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সোসাল মিডিয়া সংলাপ পরিচালনা করেন, এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব সিরাজুল ইসলাম এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল কালাম আজাদ।
এদিকে রাজশাহী থেকে এ সংলাপে অংশ নিতে পরিচালক (স্বাস্থ্য), রাজশাহীর কার্যালয়ে আরো উপস্থিত ছিলেন পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. আশিস কুমার সাহা, রামেক’র অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আনোয়ার হাবিব, উপাধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলী, প্রফসর ডা. খলিলুর রহমানসহ সিনিয়র চিকিৎসকবৃন্দ, মিডিয়াকর্মী, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার সুধিজনরা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ