রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ কামনা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৭, ১:১২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রোহিঙ্গাদের নির্যাতন বন্ধের দাবিতে মানবন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা-সোনার দেশ

মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গাদের গণহত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানবন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল রোববার সকালে রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এ কর্মসূচি পালন করে সামাজিক সংগঠন রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদ। কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।
বক্তব্য দেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পাটির মহানগর সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু, রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অনিল কুমার সরকার, দৈনিক সোনার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত, লেখক ও কলামিস্ট প্রশান্ত সাহা, অ্য্যাডভোকেট এন্তাজুল হক বাবু, রাজশাহী আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হাসান কবীর, মুক্তিযোদ্ধা চেতনা বাস্তবায়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র উপদেষ্টা অধ্যাপক লুৎফর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, অ্যাডভোকেট অঙ্কুর সেন, নারী শিল্প উদ্যোক্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সেলিনা বেগম, মহিলা পরিষদ রাজশাহী জেলা সভাপতি কল্পনা রায়, লফসের নির্বাহী পরিচালক শাহানাজ পারভীন লাকি, নারী নেত্রী রেহেনা আলী খান, শাহিনা বেগম, দিনের আলোর সাধারণ সম্পাদক সাগরিকা, রাজশাহী চেম্বারের পরিচালক এসএম এহসান, মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের সভাপতি আবদুল মতিন, শিল্পী আশফাকুল আশেকীন, সংস্কৃতি কর্মী মিনহাজ উদ্দিন মিন্টু ও জেলা যুবলীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক সামাউল ইসলাম, সাবেহবাজার বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির এমরান আলী ভূইয়া, নাগরিক সমাজের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার দে, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির নেতা মহেষ চন্দ্র সরকার, জেলা সুপ্র’র সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান, আদিবাসী পরিষদের নেতা সুভাষ চন্দ্র হেমব্রন ও হাফেজ শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ।
রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মিয়ানমারে নির্বিচারে রোহিঙ্গা হত্যা চলছে। কিন্তু এখনো বিশ^বিবেক জাগ্রত হচ্ছে না। রোহিঙ্গারা মানুষ। মানুষ হিসেবে সবার রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানো দরকার। হত্যা-নির্যাতন বন্ধে বক্তারা জাতিসংঘেরও হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
রাবি প্রতিবেদক জানান, মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের উপর জাতিগত নিপীড়ন ও অব্যাহত গণহত্যার প্রতিবাদে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) মানববন্ধন ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। ইউনাইটেড নেশনস্ ইয়ুথ অ্যান্ড স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইউনিস্যাব) রাজশাহী বিভাগীয় শাখার উদ্যোগে গতকাল রোববার দুপুর দেড়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করা হয়।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও ইউনিস্যাবের রাজশাহী বিভাগের সহযোগী সদস্য মারুফ খান বলেন, আমরা মানবিক তাগিদ থেকে মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছি। বাংলাদেশ ইতোমধ্যে সাত-আট লাখ রোহিঙ্গার ভার নিয়েছে। এ রকম উন্নয়নশীল দেশের জন্য এটা কঠিন কাজ। তারপরও এই শরণার্থীদের ভরণ-পোষণ করছে বাংলাদেশ।
তিনি আরো বলেন, ‘কিন্তু এক সময় এ দেশের পক্ষে আর এটা সম্ভব হবে না। তখন এই রোহিঙ্গারা তাদের মৌলিক চাহিদা পূরণের জন্য নানা রকম অপকর্মে জড়িয়ে যেতে পারে। আমরা মিয়ানমারকে বলবো, তারা যেন রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দিয়ে সসম্মানে ফিরিয়ে নেয়। আর এটাই আমাদের দাবি।’
মানববন্ধনে সংগঠনটির রিজিওনাল ডিরেক্টর একরাম হোসেন, মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনের কো-অর্ডিনেটর মোহাইমিনুল জোয়ার্দারসহ দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ