রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদে রাবি শিক্ষকদের মানববন্ধন

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৭, ১:১১ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক


রোহিঙ্গা নির্যাতনে প্রতিবাদে মানবন্ধনে রাবি শিক্ষকরা-সোনার দেশ

রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে এবং সংকট সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ’র ব্যানারে এবং সকাল ১০টায় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের ব্যানারে পৃথক কর্মসূচি পালন করা হয়।
বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে আয়োজিত আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের মানববন্ধনে উপউপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, ‘১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে আমরা শরণার্থী হিসাবে পাশ্ববর্তী দেশ ভারতে আশ্রয় গ্রহণ করেছিলাম, শরণার্থীদের কষ্ট আমরা বুঝি। কিন্তু বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে রোহিঙ্গাদের একা বহন করা সম্ভব নয়। তিনি সংকট নিরসনে বিশ্বমানবতাকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
তিনি আরও বলেন, ‘আমরা বিশ্ববাসীর কাছে আহ্বান জানাই, রোহিঙ্গাদের এ আশ্রয় যেন সাময়িক হয়। তাদের যেন শান্তপূর্ণভাবে দেশে ফিরে নেওয়া হয়, সেজন্য কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হোক।’
প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক অধ্যাপক রকীব আহমদের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক জান্নাতুল ফেরদৌস, শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাহ্ আজম প্রমুখ।
এদিকে রোহিঙ্গা নির্যাতেনর প্রতিবাদে সকাল ১০ টার দিকে সিনেট ভবনের সামনে থেকে মৌনমিছিল বের করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষকরা। মিছিলটি ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় সিনেট ভবনের সামনে এসে মিলিত হয়। পরে সেখানে তারা সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন।
সমাবেশে বক্তরা রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে জন্য সবাইকে জাতীয়ভাবে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। সমাবেশে বক্তব্য দেন জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক কেবিএম মাহবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুনুর রশীদ প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ