রোহিতের ডাবল সেঞ্চুরির পর বিপদে দক্ষিণ আফ্রিকা

আপডেট: অক্টোবর ২১, ২০১৯, ১:২৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশাখাপত্তনম ও পুনের পর রাঁচি। গল্পটা ঘুরেফিরে একই। টস জিতে ভারতের আগে ব্যাটিং। এরপর রানের পাহাড়। দক্ষিণ আফ্রিকার ধারহীন বোলিং। পরে ব্যাটিংয়ে বাজে শুরু। টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে যা অবস্থা তাতে প্রোটিয়াদের হোয়াইটওয়াশ হওয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র! লজ্জা এড়াতে অবিশ্বাস্য কিছুই করে দেখাতে হবে সফরকারীদের।
প্রথম দুই টেস্টের মতো রাঁচিতে শেষ টেস্টেও প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে ভারত। এবার যদিও পাঁচশর নিচে, ৯ উইকেটে ৪৯৭ রানে। জবাবে রোববার দ্বিতীয় দিন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ২ উইকেটে ৯ রান। ফলোঅন এড়াতেই এখনো করতে হবে ২৮৯ রান। ফাফ ডু প্লেসি ১ ও জুবাইর হামজা শূন্য রানে অপরাজিত আছেন।
ভারতের ইনিংসের নায়ক রোহিত শর্মা। বিশাখাপত্তনমে ওপেনিংয়ের অভিষেকে করেছিলেন জোড়া সেঞ্চুরি। রাঁচিতে রোহিত করেছেন ডাবল সেঞ্চুরি। সিরিজে তার রান ছাড়িয়েছে পাঁচশ। দেশের মাটিতে ব্যাটিং গড়ে তিনি (৯৯.৮৪) ছাড়িয়ে গেছেন ডন ব্র্যাডম্যানকে (৯৮.২২)। সেঞ্চুরি পেয়েছেন অজিঙ্কা রাহানে, রবীন্দ্র জাদেজা ফিফটি করেছেন আবার।
রোহিত সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন প্রথম দিনই। সেঞ্চুরির অপেক্ষায় ছিলেন রাহানে। ৮৩ রান নিয়ে দিন শুরু করা রাহানে প্রথম ঘণ্টায় তুলে নেন ক্যারিয়ারের একাদশ টেস্ট সেঞ্চুরি, ২০১৬ সালের অক্টোবরের পর দেশের মাটিতে প্রথম। ১১৭ রান নিয়ে দিন শুরু রোহিত ততক্ষণে পেরিয়ে যান দেড়শ।
রাহানেকে ফিরিয়ে ২৬৭ রানের চতুর্থ উইকেট জুটি ভাঙেন স্পিনার জর্জ লিন্ডে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চতুর্থ উইকেটে এটিই এখন ভারতের সেরা জুটি। ১৯২ বলে ১৭ চার ও এক ছক্কায় রাহানে করেন ১১৫ রান।
রোহিত ১৯৯ রান নিয়ে লাঞ্চে গিয়েছিলেন। বিরতি থেকে ফিরে এক ওভার দেন মেডেন। এরপর লুঙ্গি এনগিডির শর্ট বল পুল করে ছক্কায় উড়িয়ে তুলে নেন ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি। ছক্কায় ডাবল সেঞ্চুরি করা ভারতের প্রথম ব্যাটসম্যান তিনিই।
এরপর রাবাদাকে ছক্কায় উড়াতে গিয়ে বাউন্ডারিতে ধরা পড়ে শেষ হয় রোহিতের ২১২ রানের ইনিংস। ২৫৫ বলে ২৮ চার ও ৬ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান ডানহাতি ব্যাটসম্যান।
এই প্রথম এক সিরিজে ভারতের তিন ব্যাটসম্যান ডাবল সেঞ্চুরি করলেন। প্রথম টেস্টে মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও দ্বিতীয় টেস্টে অধিনায়ক বিরাট কোহলি দুইশ করেছিলেন।
রবীন্দ্র জাদেজা এরপর পেয়েছেন টানা দ্বিতীয় ফিফটি। উমেশ যাদব লিন্ডের দুই ওভার মিলিয়ে পাঁচ ছক্কা হাঁকিয়ে ১০ বলে করেন ৩১ রান। কোহলি ইনিংস ঘোষণা করায় পাঁচ উইকেটের স্বপ্ন শেষ হয়ে যায় অভিষিক্ত লিন্ডের, বাঁহাতি স্পিনার ১৩৩ রানে পেয়েছেন ৪ উইকেট। জবাবে দ্বিতীয় বলেই উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। অফ স্টাম্পের বাইরে মোহাম্মদ শামির বাড়তি বাউন্সের বলে উইকেটকিপারকে ক্যাচ দেন ডিন এলগার। পরের ওভারে আরেক ওপেনার কুইন্টন ডি কককে ফেরান উমেশ যাদব। ডু প্লেসি ও হামজা তিন ওভার কাটিয়ে দেওয়ার পর আলোকস্বল্পতায় আগেভাগেই শেষ হয়ে যায় দিনের খেলা।