র‌্যাগিং প্রমাণিত হলে ছাত্রত্ব বাতিল : রাবি প্রক্টর

আপডেট: জানুয়ারি ১৯, ২০২০, ১:১৭ পূর্বাহ্ণ

ওয়াসিফ রিয়াদ, রাবি


বিশ^বিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে যদি র‌্যাগিঙের অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাহলে বিশ^বিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ শাস্তিস্বরূপ অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর ছাত্রত্ব বাতিল করা হবে। এছাড়াও ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। গতকাল শনিবার রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় (রাবি) প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমানের সাথে সাক্ষাৎকালে তিনি এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
লুৎফর রহমান আরও বলেন, র‌্যাগিং একটি সামাজিক ব্যাধি। দিনের পর দিন বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে র‌্যাগিঙের প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। র‌্যাগিঙের প্রবণতা কমাতে শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মাইকিং করা হবে। সব বিভাগ ও ইনস্টিটিউটগুলোতে ‘অ্যান্টি র‌্যাগিং’ সম্পর্কে লিখিতভাবে জানিয়ে দেয়া হবে। বিশ^বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সকল ধরনের সচেতনতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করার পরও যদি কোনো শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে র‌্যাগিঙের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় তাহলে বিশ^বিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ শাস্তি স্বরূপ তাকে বহিষ্কার করাসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
তিনি আরও বলেন, র‌্যাগিঙের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হাইকোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক একটি মনিটরিং কমিটি গঠন করা হবে। এই কমিটি সকল ধরনের র‌্যাগিং বিষয়ক কর্মকাণ্ডের নজরদারি করবে।
এর আগে ২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর র‌্যাগিঙের বিরুদ্ধে দেশের সকল বিশ^বিদ্যালয়গুলোতে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দিয়েছিলো বিশ^বিদ্যালয়ের মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। এই নির্দেশনা মোতাবেক রাবিতেও র‌্যাগিঙের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ