লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে আমনের আবাদ খাদ্য সংকটের শঙ্কায় সাহসের স্ফুরণ

আপডেট: নভেম্বর ২৫, ২০২২, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

বিশ্ব পরিস্থিতি বিবেচনায় দুর্ভিক্ষের নানা বার্তা ও গুঞ্জন এখন নিত্য বিষয়। এরমধ্যেই খাদ্য সংকটের বিষয়টি এখন ভাবনার বিষয়। তবে এটিকে পুঁজি করে একটি গোষ্ঠী কৃত্রিম সংকট তৈরির অপচেষ্টাও চালাচ্ছে। সঙ্গে রয়েছে অপপ্রচারও। তবে পরিস্থিতি যেমনই হোক খাদ্য চাহিদা পূরণে দেশের কৃষক ও কৃষি বিভাগের প্রচেষ্টা সংকটের ভাবনার মধ্যে সাহসের স্ফুরণ হিসেবেই কাজ করছে। রাজশাহী কৃষি অঞ্চল (রাজশাহী, নওগাঁ, নাটোর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ) চলতি মৌসুমের আমনের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে আবাদ অবশ্যই স্বস্থির বার্তা।
এখন রোপা আমনের কাটা-মাড়াইয়ের সময় চলছে। গ্রামীণ আবহে দুর্ভিক্ষের শঙ্কার তেমন কোন উদ্বিগ্নতা নেই। বরং আনন্দ-উচ্ছ্বাসের সঙ্গে কাটা-মাড়াইসহ ধানের শেষ মুহূর্তের পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছে চাষীরা। রাজশাহী কৃষি বিভাগের দেয়া তথ্য বলছে, চলতি রোপা আমন মৌসুমে এ অঞ্চলে আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৪ লাখ ৩৬ হাজার ৬৬ হেক্টর জমি। লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে আবাদ হয়েছে ৪ লাখ ৪০ হাজার ৮৫ হেক্টর। উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৩ লাখ ১৭ হাজার ৯২৩ মেট্রিক টন। এখন পর্যন্ত ৪৫ শতাংশ কর্তনকৃত ধান থেকে অর্জন হয়েছে ৬ লাখ ৩৮ হাজার ৭৯৩ মেট্রিক টন। যেখানে গড় ফলনের প্রত্যাশা করা হচ্ছে হেক্টরপ্রতি ৩ মেট্রিক টনের বেশি। ভালো ফলনের প্রত্যাশার কথাই শোনাচ্ছেন কৃষি বিভাগসহ প্রান্তিক কৃষকরা।
কৃষকরা জানিয়েছেন, আবাদ করতে তাদের অনেকটাই দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। এই দুর্ভোগের বিষয়টি অস্বীকার করার কোন সুযোগ নেই। আবহাওয়া ও জ্বালানি তেলের সাময়িক সমস্যার কারণে কৃষকদের চাষাবাদে কিছুটা বেগ পেতে হয়েছে। আর এই সুযোগে এক শ্রেণির অসাধু গোষ্ঠীর অপতৎপরতাও ছিলো। সার-কিটনাশক নিয়ে যারা কৃষকদের বিপাকে ফেলতে চেয়েছিলো। এতে আবাদের খরচও বেড়েছে। তবে নানা প্রতিকূলতা মাড়িয়ে উৎপাদনে যে সফলতা এসেছে তা অবশ্যই কৃষকদের সংগ্রামের ফল। সঙ্গে ছিলো কৃষি বিভাগের প্রচেষ্টা। তবে কৃষি বিভাগকে এ বিষয়গুলো নিয়ে আরও সোচ্চার হওয়া প্রয়োজন ছিলো।
যাইহোক দিন শেষে খাদ্য নিরাপত্তায় কৃষি বিভাগ ও কৃষকের যে সফলতা তা অবশ্যই প্রশংসার। সংকটকালীন পরিস্থিতি মোকাবেলায়ও অগ্রণী ভূমিকা রেখে চলেছে দেশের কৃষকরা। এই ধারা অব্যাহতই থাকবে। সুতরাং খাদ্য উদ্বৃত্তের অঞ্চল খ্যাত রাজশাহীতে সংকটের তেমন কোন সুযোগ নেই। তবে অসাধু মুনাফালোভী গোষ্ঠীর অপতৎপরতার বিরুদ্ধে প্রশাসনকে সোচ্চার থাকতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ