লতাকে ‘মিট্টু’ বলে ডাকতেন তাঁর প্রেমিক, কেন বিয়ে হল না তাঁদের?

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২২, ১:০৪ অপরাহ্ণ

শোনা যায়, দুঙ্গারপুরের রাজ ঘরানার মহারাজ রাজ সিং-এর প্রেমে পড়েছিলেন লতা

সোনার দেশ ডেস্ক :


গানের জন্য তিনি। তাঁর জন্য গান। লতা মঙ্গেশকর চলে যাওয়ার পরে যেন আরও বেশি জীবন্ত তিনি। গান তাঁকে বিশ্বজনীন করে তুললেও ব্যক্তিগত সম্পর্ক, বিশেষত প্রেমের জীবনে দেখা গিয়েছে তিনি কখনও সঙ্গীর সঙ্গে, কখনও বা সঙ্গীহীন।

কোনও দিন বিয়ে করেননি সুরসম্রাজ্ঞী। শুধুই কি গানের জন্য দাম্পত্যকে জীবনে আনলেন না এই সাধিকা? লতা মঙ্গেশকর নামের উচ্চারণের সঙ্গে সঙ্গে এই প্রশ্ন স্বাভাবিক ভাবেই উঠে আসে।
শোনা যায়, লতা মঙ্গেশকর এক সময়ে প্রেমে পড়েছিলেন। কিন্তু তাঁর সেই ভালবাসা পূর্ণতা পায়নি। প্রেমের ব্যর্থতাই কি তবে আরও বেশি করে সঙ্গীতকে আঁকড়ে ধরতে সাহায্য করেছে?

কে ছিলেন সেই প্রেমিক?
শোনা যায়, দুঙ্গারপুরের রাজ ঘরানার মহারাজ রাজ সিংহের প্রেমে পড়েছিলেন লতা। লতার দাদার ঘনিষ্ঠ বন্ধু হিসেবেই বিসিসিআই-এর প্রাক্তন সভাপতি রাজ সিংহ দুঙ্গারপুরের সঙ্গে লতার পরিচয়। তাঁর টানেই ভালবাসতে শেখা ক্রিকেটকেও।

প্রেম এসেছিল। লতার গানে মুগ্ধ ছিলেন রাজ সিংহ। কিন্তু সেই প্রেম গভীর বন্ধনে পৌঁছয়নি। রাজ ঘরানার ছেলে রাজ সিংহ নাকি বাবা-মাকে প্রতিজ্ঞা করেছিলেন যে, কোনও সাধারণ পরিবারের মেয়েকে তিনি রাজবংশের বউ করে আনবেন না। সেই প্রতিজ্ঞা বজায় রেখেছিলেন রাজ সিংহ। তিনিও আর বিয়ে করেননি।

লতার চেয়ে ৬ বছরের বড় রাজ সিংহ আদর করে লতাকে ‘মিট্টু’ বলে ডাকতেন। তাঁর পকেটে সব সময়ে থাকত একটি রেকর্ডার। তাতে রেকর্ড করা থাকত লতা মঙ্গেশকরের জনপ্রিয় কিছু গান। ২০০৯ সালে প্রয়াত হন লতার জীবনের অন্যতম কাছের মানুষ, রাজ সিংহ দুঙ্গারপুর।
তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা