লন্ডনে ক্যামডেন লক মার্কেটে অগ্নিকাণ্ড

আপডেট: জুলাই ১১, ২০১৭, ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


লন্ডনের উত্তরাংশের ক্যামডেন লক মার্কেটে বড় ধরনের অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে, যা নেভাতে দশটি ফায়ার ইঞ্জিন নিয়ে কাজ করছিলেন অগ্নিনির্বাপক বাহিনীর ৭০ জন কর্মী।
সোমবার লন্ডন ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে।
টুইটারে ফায়ার সার্ভিস বলে, “আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে কিন্তু পুরোপুরি নিভাতে সকাল পর্যন্ত কাজ করবে দমকল কর্মীরা।”
ফায়ার সার্ভিসের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, সোমবার প্রথম প্রহরে আগুন লাগার পর পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয় এই বিপণি বিতানের দ্বিতীয় থেকে চতুর্থ তলা হয়ে ছাদ পর্যন্ত আগুন জ্বলতে দেখা যায়।
একজন প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে বিবিসি লিখেছে, আগুন খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছিল। পাশের ভবনগুলোতেও আগুন ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছিল।
আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি এবং তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতেরও কোনো খবর পাওয়া যায়নি।
লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ ও অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত আছেন।
জোয়ান রাইবস নামের ২৪ বছর বয়সী এক প্রত্যক্ষদর্শী ওই এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় আগুন দেখার কথা জানিয়ে বাতাসের কারণে আগুন আশপাশে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন।
তিনি বলেছিলেন, “বাতাসের কারণে আগুনের হলকা যেন উড়ছিল। আশপাশের ভবনগুলোতে রেস্তোরাঁ আছে, রান্নাঘর রয়েছে। আমরা আশঙ্কা করছি, আগুন ছড়িয়ে পড়লে যে কোনো সময় বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।”
এর আগেও লন্ডনের ক্যামডেন মার্কেটে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছিল। ২০০৮ সালে আগুনে মার্কেটটির স্টোরেজ এলাকা ও দোকানপাট ভস্মীভূত এবং সংলগ্ন বাড়িগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। তারপর থেকে মার্কেটটির বড় একটি অংশ কয়েকমাস ধরে বন্ধ ছিল।
গত মাসে গ্রেনফেল টাওয়ার নামে লন্ডনের একটি ২৪তলা ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকা-ে অন্তত ৮০ জন পুড়ে মারা যায়।
পরে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে জানিয়েছেন, ১২০টি বহুতল ভবন অগ্নিঝুঁকি পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়েছে।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ