বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

লালপুরে জিংক ধানের মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

আপডেট: November 23, 2019, 12:39 am

বাঘা প্রতিনিধি


লালপুর উপজেলার দুয়ারিয়া ইউনিয়নের কলস নগর গ্রামে জিংক সমৃদ্ধ ব্রি ধান ৭২ এর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৩টায় মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়।
হারভেস্ট প্লাস বাংলাদেশের সহযোগীতায় আভা ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির বাস্তবায়নে ব্রি ধান ৭২ এর প্রদর্শনী কৃষকদের ধান কাটা উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়েঅজন করা হয়। অনুষ্ঠানে দেড় শতাধিক কৃষক কৃষানীর উপস্থিতিতে আভা ডেভেলাপমেন্ট সোসাইটির পিআই ফেরদৌসী খানমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন অতিরিক্ত উপ-পরিচালক কৃষি সম্পসারণ অধিদফতর নাটোর হাবিবুল ইসলাম খান বলেন, জিংক ধানের ব্যাপক প্রসার ঘটিলে বাংলাদেশের মানুষের জিংকের চাহিদা ভাতের মাধ্যমে পূরণ করা সম্ভব হবে, তাই জিংক সমৃদ্ধ জাতগুলোর ব্যাপক প্রচার প্রয়োজন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন হারভেস্ট প্লাস বাংলাদেশের এআরডিও জাকিউল হাসান বলেন, হারভেস্ট প্লাস বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশ ও জিওএন জিওর মাধ্যমে মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে, আগামীতে যাতে জিংক চাল বাজারে পাওয়া যায়, সে লক্ষে বর্তমানে কাজ করে যাচ্ছে। আভা ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির প্রোগ্রাম কো-অর্ভিনেটর সাইফুল ইসলাম বলেন, হারভেস্ট প্লাস বাংলাদেশের সহযোগীতায় আভা ২০১৪ সাল থেকে রাজশাহী ও নাটোর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করে আসছে, শুরুতে ব্রি ধান ৬২ নিয়ে কাজ করলেও পর্যায়ক্রমে ব্রি ধান ৬৪, ব্রি ধান ৭২ ও ব্রি ধান ৭৪ এবং আগামী বোরো মৌসুমে ব্রি ধান ৮৪ নতুন জাতটি নিয়ে আমরা কাজ করবো। এই জাতগুলো সবই উচ্চ ফলনশীল জিংক সমৃদ্ধ ধানের জাত।
কৃষক রবিউল ইসলাম বলেন, আমি গত দুই বছর যাবৎ ব্রি ধান ৭২ চাষ করে ভালো ফলন পেয়েছি এবং জিংক চালের ভাত খেয়ে আমি ও আমার পরিবার আনেক উপকার পেয়েছি।
অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লালপুর উপজেলা কৃষি সম্পসারণ অফিসার শেখ মামুনুর রশিদ, উপ-সহকারী কৃষি অফিসার জনি রহমান, আভা কো-অডিনেটর প্রোগাম অফিসার আবদুর রউফ, কলস নগর কলেজ অধ্যক্ষ নূরুল ইসলাম প্রমুখ। এ ছাড়া গত বৃহস্পতিবার হোসেনপুর গ্রামে অনুরুপ একটি মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ