লালপুরে পানি শূন্য তিন গ্রাম, সংকট নিরসন করলো লাভলী ফাউন্ডেশন

আপডেট: মে ১১, ২০২৪, ৭:৫৬ অপরাহ্ণ


লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি:


‘এবছর এখনো বৃষ্টি হয় নি। আমাদের গ্রামের একটি টিউবওয়েলেও পানি উঠছে না একমাসেরও বেশি সময় ধরে। কয়েক কিলোমিটার দূর থেকে ভ্যানে করে গামলা, কলস, বালতিতে করে পানি সংগ্রহ করে রাখতে হচ্ছে। জামাকাপড় ধোয়া ও গোসল করতে হচ্ছে পাশের গ্রামে গিয়ে’ কথা বলছিলেন নাটোরের লালপুর উপজেলার নরেন্দ্রপুর কলোনির ষাটোর্ধ বৃদ্ধা জাবেদা বেগম।

একই এলাকার বাসিন্দা শাহিদা খাতুন ও আজমিরা বেগম। তারা বলেন, ‘পানির অপর নাম জীবন, কিন্তু এই পানিই এখন আমাদের কাছে সোনার হরিণে পরিণত হয়েছে। এক জগ পানির জন্য এগ্রাম, ওগ্রাম ছুটতে হচ্ছে। তারপরও পর্যাপ্ত পানি পাওয়া যাচ্ছে না। এ ভোগান্তির কথা বলে বুঝানোর মতো না। খুব কষ্ট করে আমাদের দিন যাচ্ছে।’

পানি সংকটে এমন মানবেতর জীবনযাপন করলেন উপজেলার আরও ২টি গ্রাম মহিষবাথান ও বাহাদিপুর সাঁওতালপাড়ার কয়েকশত মানুষ। তবে এ সংকট নিরসনে উদ্যোগ নেয় সেচ্ছাসেবী সংগঠন লাভলী ফাউন্ডেশন।

শনিবার (১১ মে) বেলা ১২ টার দিকে ওই তিন গ্রামে লাভলী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৩টি সাবমার্সেবল পাম্প স্থাপনের উদ্বোধন করেন গোপালপুর পৌরসভার মেয়র রোকসানা মোর্ত্তজা লিলি।
এবিষয়ে পৌর মেয়র বলেন, আমার পৌরসভার ৩ গ্রামের মানুষ পানি সংকটে মানবেতর জীবন করছিল। আমি খবর পাওয়া মাত্র আমার পৌরসভায় সাবমার্সেবল পাম্পের বরাদ্দ না থাকায় লাভলী ফাউন্ডেশন ও সিলভিয়া পারভীন লেনির মাধ্যমে এসব গ্রামগুলোতে পানির সংকট নিরাসন করা হয়েছে।

আগামীতেও এই কার্যক্রম অবহ্যত থাকবে।এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা আল ফারুক সোহাগ, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান প্রমূখ।