‘লাশ হয়ে ফেরার জন্য ক্যাম্পাসে আসি নি’

আপডেট: অক্টোবর ২২, ২০১৬, ১১:১৭ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক

‘আমরা ক্যাম্পাসে এসেছি পড়াশোনা করতে। অথচ আমাদের বারবার মৃত্যু দেখতে হচ্ছে। আমরা লাশ হয়ে ফেরার জন্য এখানে আসি নি। আমরা ভালো নেই, আমাদের মা-বাবা ভালো নেই, তারা সবাই চিন্তিত। আমরা এ আতঙ্ক থেকে মুক্তি চাই।’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী মোতালেব হোসেন লিপু হত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তার সহপাঠী রাইসা জান্নাত। কান্নাজড়িত কণ্ঠে রাইসা জান্নাত আরো বলেন, ‘আমরা আর হত্যা দেখতে চাই না। আমরা শুধু বিচার চাই, দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’
গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র কলা ভবনের সামনে বিভাগের শিক্ষার্থীরা এ কর্মসূচির আয়োজন করে। মানববন্ধনে ঝিনাইদহ জেলা সমিতি ও কুষ্টিয়া জেলা সমিতি সংহতি জানায়। মাববন্ধনে বিভাগের প্রভাষক আব্দুলাহীল বাকী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ লিপুর মৃত্যুর পর কাফন ও একটি কফিন দিয়েছে। মনে হচ্ছে, তারা কাফন, কফিন আগে থেকেই প্রস্তুত করে রেখেছিল। কিন্তু আমরা হত্যাকা-ের পরের প্রস্তুতি নয়, হত্যাকা- বন্ধের প্রস্তুতি দেখতে চাই। যাতে আর কোনও হত্যাকা- আমাদের  দেখতে না হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ে এ যাবৎ যতগুলো হত্যা হয়েছে তার একটিরও বিচার হয়নি। হত্যাকারীরা এ ক্যাম্পাসকে খুন করার উপযুক্ত জায়গা হিসেবে বাছাই করেছে।’
মানববন্ধনে বিভাগের সভাপতি ড. প্রদীপ কুমার পা-ে বলেন, ‘আমাদের বারবার এখানে দাঁড়াতে হয়। একবার শিক্ষক হত্যাকা-ের জন্য, একবার শিক্ষার্থী হত্যাকা-ের জন্য। আমি বিশ্বাস করি, যদি প্রশাসন সচেষ্ট হয় তাহলে দ্রুত সময়ের মধ্যে বের করতে পারে, কারা এটা ঘটিয়েছে। আমি হত্যাকা-ের সুষ্ঠু তদন্ত চাই। বিচার দেখতে চাই।’ বিশ্ববিদ্যালয়ের মতিহার চত্বরকে আর রক্তপুরী দেখতে চাই না।’
বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরো বক্তব্য দেন, বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মশিহুর রহমান, সহকারী অধ্যাপক শাতিল সিরাজ, রাবির কুষ্টিয়া জেলা সমিতির সহসভাপতি নাজমুস সাকিব, ঝিনাইদহের হরিণাকু- উপজেলা সমিতির সভাপতি সুমন চৌধুরী, বিভাগের শিক্ষার্থী আতিক সাদ্দাম, জোবায়দা শিরিন জ্যোতি, রেজাউল করিম শামীম, মেহেদি হাসান, রাশেদ রিন্টু, আলী হোসাইন মিঠু, সাব্বিরা মুন্নি, রাইসা জান্নাত, ইমরান খান নাহিদ প্রমুখ।
এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে সামনে লিপু হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেছে ঝিনাইদহ জেলা সমিতি। গত ২০ অক্টোবর নবাব আব্দুল লতিফ হলের ডাইনিং এর পাশের ড্রেন থেকে লিপুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ