লিওন-ওয়ার্নারের কাছে শেখার আছে বাংলাদেশের

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সিরিজ সেরার পুরস্কার হাতে ওয়ার্নার-লিওন

উপমহাদেশীয় কন্ডিশনের সঙ্গে মোটামুটি ভালো জানাশোনা আছে অস্ট্রেলিয়ার, যেখানে তাদের বাজে অভিজ্ঞতাই বেশি। বাংলাদেশে এসেও তার ব্যত্যয় ঘটেনি। প্রথম টেস্ট হেরে গেছে। এরপর দাপটের সঙ্গে দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে। তবে দল যেমনই করুক না কেন, ব্যতিক্রম ছিলেন দুজন- ডেভিড ওয়ার্নার ও নাথান লিওন। একজন ব্যাট হাতে, আরেকজন বোলিংয়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে যৌথভাবে হয়েছেন সিরিজ সেরা। অচেনা পরিবেশে কীভাবে মানিয়ে নিয়ে ভালো করতে হয় তার দারুণ উদাহরণ দুই অসি ক্রিকেটার। বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের মতে, ওয়ার্নার-লিওনের কাছে অনেক কিছু শেখার আছে।
ঢাকা টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে যখন দল ভুগছিল তখন দাঁড়িয়ে যান ওয়ার্নার। ১১২ রানের সেঞ্চুরিতে বড় হারের লজ্জা থেকে বেঁচে যায় অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় টেস্টে তার ১২৩ রান লিড এনে দেয় সফরকারীদের। অন্যদিকে লিওন ছিলেন সবচেয়ে উজ্জ্বল। প্রথম টেস্টে ৯ উইকেট ও দ্বিতীয়টিতে ১৩ উইকেট নিয়েছেন এ স্পিনার। তার স্পিন জাদুতে বাংলাদেশ আরেকবার দেখেছে ব্যাটিং দুর্দশা। প্রথমবার বাংলাদেশে টেস্ট খেলতে এসে তাদের এমন পারফরম্যান্সে মুগ্ধ মুশফিক।
তাদের দুজনের কাছ থেকে ইতিবাচক দিকগুলো বাংলাদেশের গ্রহণ করা উচিত মনে করেন অধিনায়ক। মুশফিক বলেছেন, ‘লিওন যেভাবে বোলিং করেছে, ওয়ার্নার যেভাবে ব্যাট করেছে- সেটা থেকে আমরা অনেক কিছু শিখতে পারব। সামনে আমাদের বেশ কিছু খেলা আছে। সেখানে এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারব। ধাবারাহিকতা দেখাতে পারলে ভবিষ্যতে আমরা আরও বেশি টেস্ট খেলার সুযোগ পাব।’
ঢাকা টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে ২০ রানে হারিয়ে সবচেয়ে বড় চমক দিয়েছিল বাংলাদেশ। এটাই আত্মতৃপ্তি দিচ্ছে মুশফিককে, ‘এখানে এসে খেলার জন্য অস্ট্রেলিয়াকে ধন্যবাদ। সম্ভবত ওরা হয়তো বুঝতে পারে নি, এখানে এমন লড়াইয়ের মধ্যে পড়তে হবে। আমাদের ছেলেরা বিশেষ করে প্রথম টেস্টে দারুণ খেলেছে।’
মুশফিকের বিশ্বাস, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ড্র করে বিশ্ব ক্রিকেটকে নতুন বার্তা দিয়েছে বাংলাদেশ, ‘অনেকেই ভেবেছিল ইংল্যান্ডের সঙ্গে আমরা একটা টেস্ট কোনোমতে জিতে গেছি। কিন্তু এরপর অস্ট্রেলিয়াকে হারালাম, এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর হতে পারে না। প্রতিপক্ষদের জন্য এটা বড় বার্তা। এটা বাংলাদেশের জন্য বড় অনুপ্রেরণা। আমরা আরও পরিশ্রম করবো। আশা করি এ জয়ের অনুপ্রেরণা সবাই কাজে লাগাবে এবং বিশ্ব ক্রিকেটের সবাই আমাদেরকে সম্মান দিবে।’-বাংলা ট্রিবিউন