লেনিনের ১৩২০টি ভাস্কর্য সরিয়ে ফেললো ইউক্রেন

আপডেট: আগস্ট ২২, ২০১৭, ১:২৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ইউক্রেন থেকে কমিউনিস্ট বিপ্লবী লেনিনে সবগুলো মূর্তি সরিয়ে ফেলেছে দেশটির সরকার। প্রত্যেক গ্রাম, শহর ও এলাকা থেকে মোট ১ হাজার ৩২০টি মূর্তি সরানো হয়েছে। সোমবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট এর এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনে বলা হয়, তিন বছর আগে রুশ প্রেসিডেন্ট ভিক্টোর ইয়ানুকোভিচের সময় ইউক্রেন দখল করে নেয় রাশিয়া। সোভিয়েত বিরোধী প্রকল্পে অনেক শহর ও রাস্তার নামও পরিবর্তন করা হবে। ২০১৫ সালে এই আইন পাশ করে যান প্রেসিডেন্ট পেত্রো পোরোশেঙ্কো।
শহরের অনেক রাস্তাই ইউক্রেনের বীরদের নামে রাখা হয়েছে। জাকারপাতিয়ায় লেনিন স্ট্রিট এর নাম পরিবর্তন করে লেনন স্ট্রিট রাখা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের দাবি বিটলসের জন লেননকে সম্মান জানাতে এই পদক্ষেপ নেয় তারা।
লেনিনকে বিংশ শতকের অন্যতম প্রধান ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে বিবেচনা করা হয়। বিশ্বব্যাপী তিনি একজন বিতর্কিত ও প্রভাবশালী ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। তার সমর্থকেরা তাকে গণমানুষের অধিকার আদায়ের যোদ্ধা হিসেবে বিবেচনা করে। অপরদিকে তার বিরোধীরা তাকে স্বৈরাচার শাসন ব্যবস্থার প্রবর্তনকারী এবং গৃহযুদ্ধের প্রশ্রয়দাতা ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য দায়ী করে। সোভিয়েত ইউনিয়নের জনক হিসেবে তিনি বিশ্বব্যাপী সুপরিচিত। এছাড়া মার্ক্সবাদ-লেনিনবাদ তত্ত্বের প্রবক্তা হিসেবেও তিনি বিশ্বের রাজনৈতিক ইতিহাসে পরিচিত। লেনিন আন্তর্জাতিক সাম্যবাদী আন্দোলনের অন্যতম প্রধান ব্যক্তিত্ব।
দেশটির জাতীয় স্মরণ ইনস্টিটিউটের পরিচালক ভোলদেমির ভিয়াত্রোভিচ নিশ্চিত করেছেন, ১০৬৯টি সোভিয়েত ভাস্কর্যসহ লেনিনের সবগুলো মূর্তি সরিয়ে ফেলা হয়েছে।   তবে এখনও ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে যেখানে রুশ নিয়ন্ত্রণ রয়েছে সেখানে লেনিনের অনেক মূর্তি রয়েছে।
জাতিসংঘের মতে, ২০১৪ সালে ক্রিমিয়া দখলের পর এখন পর্যন্ত ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ