লড়াইয়ের প্রতিজ্ঞা তাসকিনের কণ্ঠে

আপডেট: আগস্ট ২২, ২০১৭, ১:৩৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর প্রত্যয় নিয়ে অনুশীলনে মগ্ন তাসকিন

সাফল্যের হার, ক্রিকেট ঐতিহ্য বা র‌্যাংকিং-কোনও কিছুতেই অস্ট্রেলিয়ার কাছাকাছি নেই বাংলাদেশ। টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া ৪ এবং বাংলাদেশ ৯ নম্বরে। তবে ব্যবধান যতই থাক, দুই টেস্টের সিরিজে লড়াই করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তাসকিন আহমেদ।
সোমবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে তেমন প্রতিজ্ঞাই ফুটে উঠল বাংলাদেশের তরুণ পেসারের কণ্ঠে, ‘ওদের চেয়ে আমরা পিছিয়ে ঠিকই, তবে আমরা এখন আগের চেয়ে অনেক ভালো দল।’ এরপর পেস বোলিং দিয়ে প্রতিপক্ষকে পরাস্ত করার প্রত্যয় জানিয়ে তার মন্তব্য, ‘সুইং-রিভার্স সুইং সব কিছু নিয়েই আমরা কাজ করছি। আশা করি, আগে বল হাতে যা করতে পারিনি এবার তা করতে পারবো।’
দু দলেই পেসারের সংখ্যা তিন জন করে। তবে টেস্ট অভিজ্ঞতায় অতিথি পেসাররা বেশ এগিয়ে। অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে অভিজ্ঞ পেসার জশ হ্যাজেলউড খেলেছেন ৩০টি টেস্ট। অন্যদিকে বাংলাদেশের বর্তমান দলের পেসারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৯টি টেস্ট খেলেছেন শফিউল ইসলাম। বাকি দুই পেসার মোস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন খেলেছেন ৪টি করে টেস্ট। অভিজ্ঞতায় পিছিয়ে থাকলেও পেসারদের সাফল্যের ব্যাপারে আশাবাদী তাসকিন, ‘ওদের পেসাররা অবশ্যই ভালো, তবে আমরাও ফেলে দেওয়ার মতো নই। আমাদের পেসাররা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ জিতিয়েছে। আমরা যে এই সিরিজে ভালো করতে পারি, সে বিশ্বাস আমাদের আছে।’ গত এক বছরে টেস্টে দুটো স্মরণীয় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ, প্রথমটি গত বছরের অক্টোবরে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০৮ রানে, আর পরেরটি গত মার্চে শ্রীলঙ্কায় ‘ঐতিহাসিক’ শততম টেস্টে ৪ উইকেটে। ওই দুই জয় থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হওয়ার সংকল্প তাসকিনের, ‘ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয়টা আমাদের দারুণ অনুপ্রাণিত করেছিল। ওই জয় আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছিল আমাদের। এরপর শ্রীলঙ্কাকে ওদের মাটিতেই হারিয়েছি। ফলে আত্মবিশ্বাস আরও বেড়ে গেছে। চার-পাঁচ বছর আগের চেয়ে এখন লড়াই করে জেতার প্রত্যয় অনেক বেশি আমাদের।’-বাংলা ট্রিবিউন