শতবর্ষী সিন্দুকে গুপ্তধনের গুঞ্জন!

আপডেট: ডিসেম্বর ১৯, ২০১৬, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :



নগরীতে পুরাতন বাড়ি ভাঙার সময় বেরিয়ে আসা পুরনো এক সিন্দুক নিয়ে তুলকালাম কা- ঘটেছে। নগরীর সাহেববাজার মনিচত্বর এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা দুলাল মিয়ার বাড়ি ভাঙার সময় গতকাল রোববার দুপুরে স্থানীয় লোকজনের চোখে পড়ে শত বছরের পুরনো ওই সিন্দুকটি। এরপরই ডালপালা ছড়ায় গুঞ্জন।
সিন্দুকটি পাওয়ার পর এর ভেতর গুপ্তধন আছে, এমন খবর ছড়িয়ে পড়ে শহরে। বাড়ি ঘিরে উৎসুক মানুষের ভিড়। রাস্তায় যানজট। সবার প্রশ্ন তখন একটাই, কি আছে সিন্দুকে? খবর পেয়ে ছুটে যায় পুলিশ, ছোটেন বরেন্দ্র জাদুঘরের কর্মকর্তারাও। শেষে ভাঙা হয় সিন্দুকের তালা। ভেতরে পাওয়া যায় কিছু কাগজ, পুরনো কয়েকটি ২০ টাকার নোট আর কিছু পুরনো মুদ্রা।
ওই বাড়ির মালিক দুলাল হোসেন জানান, বেশকিছু দিন আগেই তারা বাড়িটি ছেড়ে অন্য জায়গায় চলে গেছেন। তবে অতিরিক্ত ভারি হওয়ায় সিন্দুকটি তারা নিয়ে যেতে পারেননি। সেটি বাড়ির সিঁড়িঘরে রাখা ছিল। সিন্দুকটি তার বাবার আমলের। বাড়ি ভাঙার সময় সিন্দুকটি স্থানীয় লোকজন দেখতে পেয়ে নানা গুজব ছড়াতে থাকেন।
বোয়ালিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহাদাত হোসেন খান জানান, ওটা কোনো গুপ্তধনের সিন্দুক ছিলো না। বাড়ির মালিক সেটি সেখানে রেখেছিলেন। সবার সামনেই সিন্দুকের তালা ভাঙা হয়। পরে বাড়ির মালিককেই ওই সিন্দুক দিয়ে দেয়া হয়।