শতভাগ পাস রাজশাহী কলেজ ও নিউ ডিগ্রি, জিপিএ-৫ বেড়েছে মহিলা কলেজের

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২২, ১১:০৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


দেশসেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রাজশাহী কলেজে এইচএসসি পরীক্ষায় শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। এবার রাজশাহী কলেজে মোট ৫১৪ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে সকলেই উত্তীর্ণ হয়েছে। জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫১০ জন। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩০৪ জন। ব্যবসায় বিভাগ থেকে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১০১ জন এবং মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১০৫ জন।

রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ফলপ্রকাশকে সামনে রেখে সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা প্রিয় ক্যাম্পাসে জড় হতে থাকে। ফল প্রকাশের পর আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠে শিক্ষার্থীরা। এসময় রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষ সকল শিক্ষার্থীকে মিষ্টিমুখ করান।

রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেক সকল শিক্ষার্থীর প্রতি শুভকামনা জানিয়ে বলেন, রাজশাহী কলেজ প্রশাসন, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ভালো ফল অর্জন হয়েছে। করোনাকালেও বিভিন্ন উদ্যোগের মাধ্যমে প্রত্যেক শিক্ষার্থীর খোঁজ খবর নেয়া হয়েছে। অনলাইন ক্লাসে সকল শিক্ষার্থীর উপস্থিতি নিশ্চিত করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষকদের দূরত্ব কমিয়ে আনাসহ শিক্ষার্থীদের কলেজের পক্ষ প্রয়োজনীয় সকল সার্পোট দেয়া হয়েছে। এ কারণেই এই সাফল্যের ধারা অব্যাহত রয়েছে। আশা করছি ভবিষ্যতেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে।

অন্যদিকে, নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কালাচাঁদ শীল জানান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলে শতভাগ পাস করেছে। এবছর ১ হাজার ৩১৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১ হাজার ১৫৩ জন জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজ:
জিপিএ-৫ এ রেকর্ড করেছে রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রীরা। এবছর এইচএসসিতে সর্বোচ্চ শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। যা অতীতে কখনও এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পায়নি বলে জানিয়েছেন কলেজটির অধ্যক্ষ ড. জুবাইদা আয়সা সিদ্দিকা।

তিনি বলেন, এবছর ১ হাজার ২৫২ জন ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নেয়। পাস করেছে ১ হাজার ২৪৫ জন শিক্ষার্থী। পাসের হার ৯৯ দশমিক ৪৪ শতাংশ। মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮৮৯ জন ছাত্রী। তবে করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় কয়েকজন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় বসতে পারেনি। এর মধ্যে ব্যবসায়ী শিক্ষা বিভাগের চারজন ও মানবিক বিভাগের একজন করে শিক্ষার্থী ছিলেন।

এবছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া সর্বোচ্চ শিক্ষার্থী ছিল বিজ্ঞান বিভাগ থেকে। এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থী ছিল ৫৪২ জন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৩৯ জন। শুধু তিনজন জিপিএ-৫ পায়নি। তবে এই তিজনের ফলাফল ভালো করেছে।

জানা গেছে, পাস ও জিপিএ-৫ এর দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে মানবিক বিভাগ। মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী ছিল ৪৫৫ জন। একজন ছাত্রী অসুস্থ ছিল। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২৪ জন। আর ব্যবসায়ী শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী ছিল ২৫৮ জন শিক্ষার্থী। পাস করেছে ২৪৮ জন। অনুপস্থিত ৪ জন। ফেল করেছে ৬ জন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৫ জন শিক্ষার্থী।
জয়া নামের এক ছাত্রী জানায়, করোনার কারণে পড়া-শোনা অনেকটাই কষ্টকর ছিল। কখনও ক্লাস হয়েছে, আবার হয়নি; কখনও বা হয়ে অনলাইনে। সবমিলে একটা ছোটাছুটির মধ্যে গেলো দুই বছর।

তিনি আরো বলেন, করোনার এই সময়ে পড়া-শোনার বিষয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষাকদের থেকে অনেক সুবিধা পাওয়া গেছে। অনেক সময় অনলাইনে শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের পড়া-শোনার বিষয়ে বুঝিয়েছেন। এতে করে আমরা সমৃদ্ধ হয়েছি।
রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ড. জুবাইদা আয়সা সিদ্দিকা জানান, শিক্ষকরা অনেক আন্তরিককতার সাথে অনলাইন ও অফলাইন ক্লাসে শিক্ষার্থীদের পড়া-শোনা করিয়েছেন। ক্লাসের বিষয়গুলো ভালোভাবে তদারকি করা হয়েছে। এছাড়া বেশি পরীক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। যাতে করে শিক্ষার্থীদের পড়া-শোনাটা সম্পন্ন হয়ে থাকে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ