শপথ নিলেন রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রাহিদ সরদার

আপডেট: জুন ২৫, ২০২৪, ৭:৪৭ অপরাহ্ণ


নওগাঁ প্রতিনিধি:


নওগাঁ জেলার সর্বকনিষ্ঠ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ নিলেন রাণীনগর উপজেলার নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নতুন মুখের মো: রাহিদ সরদার। এই শপথ গ্রহণের পর রাণীনগর উপজেলার ইতিহাসের পাতায় নতুন করে অধ্যায় রচনা শুরু করলেন উপজেলা আ’লীগের সদস্য ৩৫বছরের মো: রাহিদ সরদার।

মঙ্গলবার (২৫জুন) দুপুরে রাজশাহী জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় কর্তৃক আয়োজিত শপথ বাক্য পাঠ অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ৩য় ও ৪র্থ পর্যায়ের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানগণকে শপথ বাক্য পাঠ করান। এর আগে বিভাগীয় কমিশনার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। অনুষ্ঠানে রাণীনগর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রদ্যুৎ কুমার প্রামাণিক ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে মোছা: রুমা বেগম শপথ গ্রহণ করেন।

৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ৩য় পর্যায়ে গত ২৯ মে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয় নওগাঁর রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলায়। এই নির্বাচনে রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হন জেলার সর্বকনিষ্ঠ নতুন মুখের তরুন প্রার্থী উপজেলা আ’লীগের সদস্য, সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব মো: আনোয়ার হোসেন হেলালের বড় ছেলে মো: রাহিদ সরদার।

এই বিজয়ের মধ্যদিয়ে রাহিদ সরদার সর্বকনিষ্ঠ চেয়ারম্যান হওয়ার গৌরব অর্জনের পাশাপাশি রাণীনগরের ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম লিখাতে সক্ষম হলেন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন মোট আটজন প্রার্থী। এদের মধ্যে তুমুল লড়াই হয় দুই নতুন মুখের তরুন প্রার্থী সাবেক এমপি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক দুইবারের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: আনোয়ার হোসেন হেলালের ছেলে মো: রাহিদ সরদার এবং সাবেক এমপি মরহুম ইসরাফিল আলমের ভাতিজা ও সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা মো: আসাদুজ্জামান আসাদের মধ্যে। এই পদে শতকরা ভোট পড়ে ৪১.৭০ভাগ। নির্বাচনে মো: রাহিদ সরদার কাপ-পিরিচ প্রতিকে ভোট পান ২৩৪৬৪ টি আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আরেক নতুন মুখের তরুন প্রার্থী মো: আসাদুজ্জামান আসাদ কৈ মাছ প্রতিকে ভোট পান ১৪৫৪৮টি।

অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে মো: রাহিদ সরদার বলেন, আমাকে এই বিরল সম্মান অর্জন করার সুযোগ করে দেওয়ায় সমগ্র উপজেলাবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আগামীতে মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনার সার্বিক সহযোগিতা নিয়ে একজন তরুন চেয়ারম্যান হিসেবে রাণীনগর উপজেলাকে বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া স্বপ্নের বাংলাদেশের একটি অংশ হিসেবে গড়ে তোলার চেস্টা করবো। এছাড়া উপজেলাবাসীকে সারথী করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশের একটি মডেল উপজেলা হিসেবে রাণীনগরকে বিনির্মাণ করতে নিজেকে সম্পন্ন বিনিয়োগ করবো। আগামীর পথ চলায় সবার কাছ থেকে একান্ত ভাবে ভালো সমালোচনা, গঠনমূলক পরামর্শ ও সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ