শব্দ দূষণ রোধে ইমাম ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ

আপডেট: অক্টোবর ২৪, ২০২১, ৯:৩৩ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:


গ্রিন-ক্লিন ও হেলদি সিটি খ্যাত রাজশাহীতে অন্যান্য দুষণ তেমন না থাকলেও শহরের বেশকিছু জায়গায় শব্দ দুষণ বেশি হচ্ছে। রাজশাহী শহরে শব্দের মাত্রা ৫৬ ডেসিবল থেকে ১৩৩ ডেসিবল। যেখানে স্বাভাবিক শব্দের মাত্রা ৫৫ থেকে ৬০ ডেসিবল। বিভিন্ন কারণে এই দুষণ হচ্ছে। দেশের বুকে ‘মডেল শহর’ হিসেবে স্বীকৃত রাজশাহী নগরীতে শব্দ দুষণ রোধে ‘শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত ও অংশিদারিত্ব’ প্রকল্পের আওতায় পরিবেশ অধিদপ্তরের আয়োজনে ইমাম ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণে দুষণ রোধে শব্দ নিয়ন্ত্রণের প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়।

রোববার (২৪ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ৩ টায় রাজশাহী কলেজ মিলনায়তনে শিক্ষার্থীদের নিয়ে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে শিক্ষার্থীদের নিয়ে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. মো. হুমায়ুন কবীর।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, যোগাযোগের মাধ্যম শব্দ। তবে এর সহনশীল মাত্রা আছে। স্বাভাবিকের চেয়ে মাত্রা বেশি হলে সেটা মানুষসহ প্রাণি দেহে ক্ষতি সাধন করে। মানুষের মেধা ও শারীরিক বিকাশেও প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। আর আগামী দিনে বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ে তুলতে হলে আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব আছে। প্রত্যেককে সচেতন থাকতে হবে। শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে নিজের সচেতনতার পাশাপাশি কমিউনিটির অন্যদেরও বোঝাতে হবে।

শিক্ষার্থীদের নিয়ে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (যুগ্ম সচিব) হুমায়ুন কবির, রাজশাহী বিভাগীয় (স্বাস্থ্য) পরিচালক ডা. হাবিবুল আহসান তালুকদার, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. আসাদুর রহমান, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের ল্যাবরেটরী অ্যান্ড সাইন্স বিভাগের অধ্যপক ড. আবুল কালাম আজাদ, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) অনির্বাণ চাকমা ও জেলা পুলিশের অ্যাডিশনাল ডিআইজি জয়দেব ভদ্র। প্রশিক্ষণে অতিথিরা শব্দ দূষণের কারণ, স্বাভাবিক ও ক্ষতিকর মাত্রা, শব্দদূষণের কুফল ও সচেতনতা নিয়ে আলোচনা করেন।

এরআগে বেলা ১১টায় নগরীর ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমী মিলনায়তনে বিভিন্ন মসজিদের ইমাম-খতীবদের নিয়ে সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমীর উপ-পরিচালক ডা. আসেম আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহা-পরিচালক (যুগ্ম সচিব) হুমায়ুন কবির। এ সময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. আব্দুল মান্নান, পরিবার পরিকল্পনা রাজশাহীর পরিচালক মাহবুবুল আলম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাবিহা সুলতানা, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. আসাদুর রহমান, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের বোয়ালিয়া জোনের ডেপুটি পুলিশ কমিশনার সাজিদ হোসেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র কেমিস্ট মিজানুর রহমান প্রমুখ।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মসজিদের ইমাম, খতিব ও রাজশাহী কলেজের শিক্ষার্থীরা শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে স্ব স্ব জায়গা থেকে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন।