শর্ত অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বালাই নেই সব অবস্থায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে

আপডেট: এপ্রিল ২৯, ২০২১, ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ

করোনা নিয়ন্ত্রণে ‘কঠোর’ বিধিনিষেধের মধ্যেই গত রোববার থেকে খুলে দেয়া হয়েছে দোকানপাট ও শপিংমল। তবে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার শর্ত দেয়া হলেও তা মানতে দেখা যায়নি। নভেল করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় ক্ষেত্রে বড় ঝুঁকি হয়ে দাঁড়িয়েছে মানুষের অসতর্কতা ও উদাসীনতা। নানা ‘অজুহাতে’ তারা বাইরে বের হচ্ছেন। জনসমাগম ঘটছে এমন স্থানেও অনেকে মুখে পরছেন না মাস্ক, বজায় রাখছেন না সামাজিক দূরত্ব। মাস্ক ব্যবহার, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, বারবার সাবান দিয়ে হাত ধোয়া এগুলো স্বাস্থ্যবিধির প্রধান শর্ত। মাস্ক ‘সামাজিক ভ্যাকসিন’ হিসেবে বিবেচিত। জনসমাগম এড়িয়ে চলাও অন্যতম শর্ত। কিন্তু সব ক্ষেত্রেই এক ধরনের উপেক্ষা-অবজ্ঞা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। অযথা চায়ের দোকানে আড্ডা। আবার বিভিন্ন মার্কেট ও শপিং মলে শিশুদের নিয়ে অভিভাবকরা ছুটছেন। আবার কেউ কেউ পুলিশ ও প্রশাসনের ব্যক্তিদের দেখামাত্র মাস্ক পরছেন। তাদের হাত থেকে বাঁচলে মানুষজন আবার মাস্ক গুটিয়ে নিচ্ছে।
বিগত এক বছর ধরে রাজশাহী বিভাগীয়, জেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্যবিভাগ, পুলিশ প্রশাসন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ অনেকেই ক্রমাগত কাজ করে যাচ্ছে! বোঝাতে চাইছে, এটি থেকে বাঁচতে হলে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে! জনসমাগম সীমিত করতে হবে, মাস্ক পরতে হবে, দূরত্ব বজায় রেখে চলতে হবে, শুধুমাত্র স্বাস্থ্যবিধি মানলেই আমরা আশিভাগ সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারি! এটি মানানোর জন্য অবিরত প্রচারণা চালানো হচ্ছে! কিন্তু আমরা মানছি কি?
প্রতিবেশী দেশ ভারতের ট্রিপল মিউটেন্ট ভাইরাসটি আমাদের দেশে যে আসবে না সেটির কি গ্যারান্টি আছে? কিংবা ইতোমধ্যে হয়তোএসেই গেছে! আসাটাই তো স্বাভাবিক! কারণ, ভাইরাসটি কিন্তু বায়ুুবাহিত! বাতাস তো আর কাঁটাতার দিয়ে আটকানো যায় না! তাহলে উপায়?! বাঁচবো কী করে আমরা?! উপায় দুটি : স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে! যেটি সরকার একবছর ধরে বলে আসছেন! আর ভ্যাকসিন! এই ভ্যাকসিন নিয়ে কত যে রটনা! অথচ এটি অক্সফোর্ড এস্ট্রাজেনেকার অতি নিরাপদ একটি ভ্যাকসিন!
স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন! নইলে কেউই সুরক্ষা দিতে পারবে না আপনাকে! সরকার যথেষ্ট করছেন! করে চলেছেন! আমাদের তো সরকারকে সহযোগিতা করতে হবে, নাকি?! আমাদের সুরক্ষা কিন্তু আমাদেরই নিশ্চিত করতে হবে!

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ