শহিদের মঞ্চ থেকে ‘বিজেপি ভারত ছাড়ো’ আন্দোলনের ডাক মমতার

আপডেট: জুলাই ২২, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


কেন্দ্রের বিরোধিতায় এবার আরও কঠোর পদক্ষেপ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আলাদা আলাদা নীতির বিরোধিতা ছিলই। এবার সামগ্রিকভাবেই বিজেপিকে দিল্লি থেকে উৎখাত করতে আন্দোলনের ডাক দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। ২১-এর মঞ্চ থেকেই বিজেপি-র বিরুদ্ধে ভারত ছাড়ো অভিযানের ডাক দিলেন তিনি।
এদিন বক্তৃতার শুরুতেই মমতা জানিয়েছিলেন, ২১ জুলাই হচ্ছে আগামীর রূপরেখা তৈরি করার দিন। সেইমতো এই মঞ্চ থেকেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে সরাসরি সংঘাতের পথে নামলেন তিনি। ৯ আগস্ট থেকে দলীয় কর্মীদের ‘বিজেপি ভারত ছাড়ো’ অভিযানে শামিল হওয়ার নির্দেশ দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। প্রত্যাশামতোই এদিন বিজেপিকে তুলোধনা করেন মমতা। দেশ জুড়ে জরুরি অবস্থার থেকেও বয়াবহ অবস্থা চলছে বলে দাবি তাঁর। রীতিমতো পরিসংখ্যান তুলে ধরে জানান, অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে মোদির সরকার। আর তাই দাঙ্গা ছড়িয়ে নজর ঘোরানোর চেষ্টা হচ্ছে বলেও অভিযোগ মমতার। তবে তাঁর দাবি, এত সহজে বাংলাকে দখল করা যাবে না। আর যদি কেউ মনে করে ২০১৯-কে পকেটে পুরে রেখেছে তবে তাঁর হুঁশিয়ারি, সে পকেট কিন্তু ফুটো হয়ে যেতে পারে। এখন থেকেই তা শুরু হয়েছে।
সদ্য শেষ হওয়া রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের উদাহরণ তুলে ধরে তিনি বলেন, সংখ্যার রাজনীতিতে কিন্তু পালটা হাওয়া বওয়া শুরু হয়েছে। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ৭০ শতাংশ ভোট পাওয়ার কথা বলেছিল এনডিও। যদিও অনেক চেষ্টাতেও তা সম্ভব হয়নি। এনডিএ-প্রার্থী জয়লাভ করলেও বিরোধী প্রার্থী যে ভোট পেয়েছেন, তা বিরোধী জোটের শক্তিবৃদ্বির ইঙ্গিত দিয়েছে। এদিন সে প্রসঙ্গই তুলে ধরেন মমতা। বিজেপির বিরুদ্ধে বিরোধী শক্তিগুলি যে জোট বাঁধছে তা উল্লেখ করেই বিজেপিকে ‘বোল্ড আউট’ করার ডাক দেন মমতা। ‘গো-রক্ষার’ নামে ‘গো-রাক্ষস’ তৈরি করে দেশ জুড়ে বিজেপি তা-ব চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করে মমতার দাবি, এর আগেও বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলা পথ দেখিয়েছে দেশকে। বিজেপিকে হটানোর ক্ষেত্রেও বাংলা সে ভূমিকা পালন করবে বলে দাবি তাঁর।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন