শহিদ দিবসে প্রমোদ ভ্রমণ, আটঘরিয়ার ইউএনও ওএসডি

আপডেট: মার্চ ২, ২০১৭, ১২:২২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহিদ দিবসে উপজেলা চেয়ারম্যান জামায়াত আমিরসহ প্রমোদ ভ্রমণের পর সমালোচনার মধ্যে পাবনার আটঘরিয়ার ইউএনওকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করা হয়েছে।
এছাড়া আটঘরিয়ার থানার ওসি এস এম ফারুক হোসেনকে দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করে পাবনা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।
মঙ্গলবার এ দুটি আদেশ দেওয়া হয়েছে বলে পাবনা জেলা ও পুলিশ প্রশসান নিশ্চিত করে।
গত ২১ ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে পাবনার পাকশীতে পিকনিকে যান আটঘরিয়া উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা হয়।
স্থানীয়রা জানান, উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের উদ্যোগে ২১ ফেব্রুয়ারি সারাদিন প্রশাসনের কর্মকর্তারা ও কর্মচারীরা পিকনিকও নৌ ভ্রমণ করেছেন, যার নেতৃত্বে ছিলেন ইউএনও মোহাম্মদ সাইদুজ্জামান। সঙ্গে ছিলেন পাবনা জেলা জামায়াতের নায়াবে আমির (ভারপ্রাপ্ত) ও উপজেলা চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম খান।
তাদের সারাদিনের অনুষ্ঠানসূচির মধ্যে ছিল পদ্মানদীতে নৌ ভ্রমণ, দুপুরে খাবারদাবার, প্রেসক্লাবে র্যা ফেল ড্র। পরদিন এসব অনুষ্ঠানের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাদ্যমে প্রকাশ হয়।
পাবনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাকসুদা বেগম সিদ্দিকা জানান, আটঘরিয়ার ইউএনও মো. সাইদুজ্জামানকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে বদলি করা হয়েছে। এর বেশি বিস্তরিত কিছুই বলেননি তিনি।
এছাড়া আটঘরিয়ার থানার ওসি এস এম ফারুক হোসেনকে পাবনা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন পাবনার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির।
আটঘরিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জহুরুল হক বলেন, “উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বদলি হয়েছেন। এতে আমরা খুশি হয়েছি। তিনি তার কৃতকর্মের ফল পেয়েছেন।”- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ