শিক্ষক মায়া হতাকান্ডে যুবক গ্রেফতার

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১, ৯:২৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মায়া রাণী ঘোষ (৭০) হত্যকান্ডের ঘটনায় মিলন শেখ (২৪) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হত্যাকান্ডের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মামলার আসামি গ্রেফতার ও রহস্য উন্মোচন হলো। গ্রেফতারকৃত মিলন শেখ নগরের বড়কুঠি এলাকার মৃত কালু শেখের ছেলে। তিনি পেশায় রঙমিস্ত্রি। আসামী মৃত মায়া রাণীর ছাত্র ছিলেন। সেই সুবাদে প্রায় বাসায় আসা-যাওয়া ছিল মিলনের।

বুধবার (২২ সেপ্টম্বর) বিকেল সাড়ে চার দিকে নগরীর বোয়ালিয়া থানায় সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এই তথ্য জানায় পুলিশ। এসময় নগর পুলিশের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার (২১ সেপ্টম্বর) দিবাগত রাতে কুমারপাড়া মুন্নুজান স্কুলের সামনে থেকে আসামী মিলন শেখকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীর দেওয়া তথ্যমতে নিহত মায়া রাণীর ব্যবহৃত স্বর্ণালংকার ও তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার করা হয়।

নিহত মায়া রাণীর ছোট ভাই দেবাশিষ ঘোষ (৬২) জানান, নিহত মায়ারাণী ঘোষ তার বাসায় একা থাকতেন। সেই সুবাদে আসামী হত্যা করে তার হাত, কানে ও গলায় থাকা স্বর্ণালংকার ও তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন সেট চুরি করে নিয়ে যায়।

বোয়ালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারণচন্দ্র বর্মন জানান, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. গোলাম মোস্তফা সাইবার ক্রাইম ইউনিটের তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় এবং গোয়েন্দা তথ্য ব্যবহার করে আসামিকে গ্রেফতার করেন।
তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে এই হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করে। জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানায়, আসামী বাসা ভাড়া নেয়ার মিডিয়া হিসেবে কাজ করার কৌশলে নিহত মায়া রাণীর বাড়িতে যান। এর পরে তার হাত, কান ও গলায় থাকা স্বর্ণালংকার চুরি করে এবং পরিচয় গোপন রাখার জন্যই এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, রাজশাহী মুন্নুজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে অবসরে যান প্রধান শিক্ষক মায়ারানি ঘোষ খুন হন। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঘোষপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ