শিক্ষার্থীদের উপরে হামলার ঘটনায় তদন্ত কমিটি ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলায় আটক চার

আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০২০, ৯:২১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :


শিক্ষার্থীদের উপরে হামলা ও শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজের সার্বিক বিষয় নিয়ে সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি আগামী ৩০ দিনের মধ্যে একটি প্রতিবেদন দেবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের হামলায় ঘটনায় করা মামলায় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।
এর আগে শনিবার (২৮ নভেম্বর) সকালে ‘নীতিমালা অনুযায়ী শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজের কার্যক্রম পরিচালনা হচ্ছে কিনা তা দেখতে তদন্তে আসেন স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতরের প্রতিনিধি দল। চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর অতিরিক্ত মহাপরিচালক একেএম আমিনুল ইসলামসহ আরও তিনজন সরেজমিনে মেডিকেল কলেজটি পরিদর্শন করেন।
যদিও আগে থেকেই মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। শিক্ষার্থীদের উপরে হামলার বিচার ও মাইগ্রেশনের দাবি করে তারা।
শিক্ষার্থীদের উপরে হামলা ও কলেজের বিভিন্ন বিষয় শিক্ষার্থীদের কথা শোনেন পরিদর্শনকারী দলের সদস্যরা। এছাড়া এই ঘটনায় চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর অতিরিক্ত মহাপরিচালক একেএম আমিনুল ইসলামকে প্রধান করে সাত সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটিকে এক মাসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।
পরে অতিরিক্ত মহাপরিচালক একেএম আমিনুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, আমরা কলেজ পরিদর্শন করেছি। যে যে বিষয় গুলো জানা দরকার সব সংগ্রহ করেছি, যা আগামী ৩০ দিনের মধ্যে একটি প্রতিবেদনে জানানো হবে। শুক্রবার একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। আমরা সেটির জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। আইন বিভাগ সেটির সুস্থ তদন্ত করে শাস্তির ব্যবস্থা করবেন। এবিষয়ে রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানায়, ‘বর্তমানে কলেজের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। মেডিকেল কলেজ পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’
অন্যদিকে, শিক্ষার্থীদের উপরে হামলায় মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসানের করা মামলায় চারজনকে আটক করে পুলিশ। আটককৃতদের মধ্যে মেডিকেল কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনিরুজ্জামান স্বাধীনের স্ত্রী বিউটি ও দেবর মেহদী হাসান মিঠু ছাড়াও দুইজন রয়েছে। তবে এমডির স্ত্রী ও ভাইকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশ।
বিষয়টি নিশ্চিত করে নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানায়, এই মামলায় সকালে মেডিকেল কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের স্ত্রী বিউটি ও দেবর মেহদী হাসান মিঠুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আরও দুজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততা থাকলে তাদের গ্রেফতার করা হবে।
মামলার বাদি মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থী মেহদী হাসান জানান, শুক্রবার রাতে মেডিকেল কলেজের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ নয় জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৮ থেকে ১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়।
তিনি জানান, কলেজের এমন পরিবেশের কারণে শিক্ষার্থীরা এখানে থাকতে চায় না। শিক্ষার্থীদের দাবি হামলাকারীদের গ্রেফতার ও মাইগ্রেশনের দাবি জানানো হয়।
প্রসঙ্গত, শুক্রবার শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের ওপরে হামলার ঘটনায় ১৩ জন আহত হন। পরে তাদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের মধ্যে কেউ কেউ শনিবারের চলা আন্দোলনে যোগদান করেন।