শিবগঞ্জে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজে চলছে ভারী যানবাহন

আপডেট: মে ২৫, ২০২২, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি:


শিবগঞ্জের ধাইনগর ইউনিয়নের লাউঘাট্টা মহিষডাঙ্গা খালের উপর ভাঙা ব্রিজ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে পথচারীরা। ভাঙা ব্রীজ দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করায় প্রায় ঘটছে দুর্ঘটনা।

স্থানীয়রা জানায়, ১৯৮৫-৮৬ সালে তৎকালীন সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম ডা. মইনউদ্দিন আহমেদের উদ্যোগে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়। পূূর্বে এ ব্রীজটির উপর দিয়ে ভারী যানবাহন না চললে এখন ভারী যানবাহন চলাচল করে।

সরজমিনে জানা যায়, ব্রিজটির ঢালাই ধসে সৃষ্টি হয়েছে মরণ ফাঁদে। রডগুলো দেখা যাচ্ছে। সম্প্রতিককালে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের নির্দেশে মেরামত করে চলাচলের উপযোগী করা হয়েছিল। আবারও পূর্বের অবস্থায় ফিরে গেছে। ভেঙে পড়েছে ব্রিজটির দুই পাশের স্প্যান। পট্টিটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেছে। এ অবস্থায় ব্রিজটির উপর দিয়ে চলছে হালকা-ভারী সবধরনের যানবাহন। ফলে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে ব্রিজটি।

শামীমা নামের এক শিক্ষার্থী জানান, ব্রিজটির উপর দিয়ে প্রতিদিন শতাধিক যানবাহন ও সহস্রাধীন মানুষ চলাচল করে। হাটের দিন ও অফিস সময়ে বেশী লোক চলাচল করে। কয়েকদিন আগেও দুর্ঘটনা ঘটেছে।

তরিকুল ইসলাম বলেন, এ রাস্তা দিয়ে দিয়ে পোলাডাঙ্গা, ফকিরপাড়া, রানীনগর, দিয়াড়, ধাইনগর, চককীর্তি, ভাটুপাড়া, সিরোপাড়া, বারোমাসিয়া, নামোটোলা, পিরোনটোল, আব্বাস বাজার, কানসাট, মোবারকপুর, হাজিডাঙ্গা ও আঁখিরাসহ প্রায় ২৫/৩০ গ্রামের মানুষ চলাচল করে।

আহসান হাবিব নামে এক পিকআপ চালক বলেন, প্রায় ৩-৪ বছর থেকে ব্রিজটি ভেঙে পড়ে আছে। এর আগে ব্রিজের মাঝামাঝি স্থানে গর্ত ছিল।

তিনি আরো জানান, নতুন করে নির্মাণ না করলে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে ।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফদরের উপজেলা প্রকৌশলী হারুন অর রশিদ বলেন, অনেক আগে ব্রিজটি নির্মাণ হওয়ায় ব্রিজের স্লাব ভেঙে গেছে। ওই স্থানে নতুন করে ব্রিজ নির্মাণের উদ্দেশ্যে সার্পোটিং প্রকল্প আওতায় প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। সামনে অর্থবছরে এটি অনুমোদন হলে জনগণের দুর্ভোগ লাঘব হবে।