শিবগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদানে বাধা, অভিযোগ দায়ের

আপডেট: এপ্রিল ২৫, ২০১৭, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি


শিবগঞ্জের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্থানীয় কয়েকজন পাঠদানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার ধাইনগর ইউনিয়নের গোসাইবাড়ি রেজি. প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। গত রোববার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামান মাসুদ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।
একটি আবেদন সূত্রে জানা গেছে, ১৯৭৩ সালে স্থাপিত বিদ্যালয়টি রেজি. হয় ১৯৭৯ সালে। রেজি. ১৮৬/৩ (রাজ)। তবে ১৯৯৮ সালে বিদ্যালয়টি বন্যায় ভেঙে যাওয়ায় পুনরায় ২০০১ সালে বিদ্যালয়টি চালু করা হয়। বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীর সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ায় চলতি বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি শিবগঞ্জ উপজেলা পর্যায়ের ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গত শুক্রবার বিকেলে বিদ্যালয়টি পুনরায় নির্মাণ করার নির্দেশ দেন। কিন্তু গত শনিবার সকালে মধ্যমচরি মির্জাপুর গ্রামের রিপন আলী, গোলাম মোস্তফা, দুরুল হোদাসহ আরো কয়েকজন স্বার্থান্বেষী নির্মাণকৃত বিদ্যালয়টি ভাঙচুর করে।
অভিযোগে আরো বলা হয়েছে, বিদ্যালয়টির জমির দুইপাশে গোসাইবাড়ী দাখিল মাদ্রাসার জমি থাকায় এলাকাবাসী ও জমিদাতার ছেলেরা মাদ্রাসার পক্ষ নিয়ে গোসাইবাড়ী রেজি. প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রিকৃত জমির উপর গাছ লাগিয়ে জবরদস্তি দখল করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।
তবে সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে গোসাইবাড়ি গ্রামের মৃত এশরুদ্দিনের ছেলে মাহাতাব উদ্দিন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয়টি জোরপূর্বক অপরের জমিতে স্থাপন হওয়ায় এলাকাবাসী এর প্রতিবাদ করেছে।
জমির বিষয়ে প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামান মাসুদ বলেন, জমির দলিল, ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ, রেজি. সনদসহ সবকিছুই ঠিক আছে। এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সরকার রিয়াজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আবেদন পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে আবার পাঠদান কর্মসূচি চালু হবে বলে জানান তিনি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ