শিবগঞ্জে ব্ল্যাকমেইল করে টাকা আদায় করায় বেনু সিংহকে হত্যা, মূলহোতার আদালতে স্বীকারোক্তি

আপডেট: জানুয়ারি ২২, ২০২২, ৯:২০ অপরাহ্ণ


শিবগঞ্জ প্রতিনিধি:


শিবগঞ্জে ব্ল্যাকমেইল করে টাকা আদায় করায় বেনু সিংহকে হত্যা করা হয়েছে বলে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে মূলহোতা আনন্দচন্দ্র সিংহ। শনিবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে সে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আদালতে এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। এর আগে শুক্রবার রাতে মূলহোতার বসতবাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মূলহোতাআনন্দ চন্দ্র সিংহ হচ্ছে- সদর উপজেলার চুনাখালী হিন্দুপাড়া গ্রামের বিভুতি চন্দ্র সিংহের ছেলে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি ফরিদ হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে কানসাট ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড পুঁঠিমারী বিলের আঁখ ক্ষেত থেকে মরদেহটি উদ্ধারের ঘটনায় রাতেই অজ্ঞাতদের আসামি করে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। শুক্রবার রাতে হত্যাকান্ডের মূলহোতার বসতবাড়িতে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয় আনন্দ চন্দ্র সিংহকে।

পরে সে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। জবানবন্দিতে সে জানায়, তার একটি অশ্লীল ছবি পেয়ে যায় নিহত বেনু সিংহ। এই ছবির সূত্র ধরে বিভিন্ন সময় তার কাছে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে সে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং পরিকল্পনা করে কৌশলে মেরে ফেলার। বুধবার রাতে টাকা দেবে এমন আশ্বাসে বেনু সিংহকে পুঁঠিমারী বিলে নিয়ে যায় আনন্দ চন্দ্র সিংহ।

মাটির নিচে গুপ্তধন আছে মর্মে খুড়তে শুরু করে বেনু সিংহ। এক পর্যায়ে হাতুড়ি ও নেহাল দিয়ে তাকে হত্যা করে। পরে তার দেয়া তথ্যে রাজশাহীর মোহনপুর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যার কাজে ব্যবহৃত হাতুড়ি, নেহাল ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার পুঁঠিমারী বিলের আঁখ ক্ষেতে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ও রাজশাহীর সিআইডির ক্রাইম এক্সপার্টের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে মরদেহের সুরতহাল রির্পোট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ