শিবগঞ্জে মরদানায় ককটেল বিস্ফোরণ : আটক ৩

আপডেট: জুন ১৮, ২০১৭, ১:০২ পূর্বাহ্ণ

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি


সন্ত্রাস জনপদ নামে খ্যাত শিবগঞ্জ উপজেলার শিবগঞ্জ পৌরসভাধীন মরদানা গ্রামে হত্যা মামলার সদ্য জামিনপ্রাপ্ত আসামির বাড়িতে ককটেল বিস্ফোরণে বাড়ির টিনের চাল উড়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং তিনজনকে আটক করেছে। তবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।
এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শনিবার দুপুর ১টার দিকে শিবগঞ্জ পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের মরদনা গ্রামের বাবুনপাড়ায় আলী সাহেবের বাড়িতে কাঠের বাক্সে রক্ষিত ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে। এতে তার বাড়ির দুটি কক্ষের টিনের চালা উড়ে গিয়ে গাছে বাধে এবং ইটের দেয়াল ভেঙ্গে পড়ে। এঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ১ নারীসহ ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পর আশপাশের সব পুরুষ বাড়ি থেকে পালিয়েছে। বর্তমানে ওই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে এবং পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে।
এ ব্যাপারে সদর ও শিবগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়ির সহকারী পুলিশ সুপার ওয়ারেশ আলী মিঞা জানান, ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনার সংবাদ পাওয়া মাত্র শিবগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুল ইসলাম হাবির ওসি (তদন্ত) মুন্সি আবদুুল কুদ্দসসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তিনজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো আবদুল কাদিরের ছেলে জেনারুল (৩৫), আমজাদের ছেলে সাইদুর (৪৩) ও নেস মোহাম্মদের স্ত্রী এমেলি (৬০)। তিনি আরো জানান, যে বাড়িতে ঘটনা সে বাড়ির সবাই পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তিনি আরও জানান, আলী সাহেব একই এলাকার জান্নাতি হত্যা মামলার আসামি মাত্র ১০ দিন আগে জামিন পেয়ে সে বাড়ি আসে।