শিবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনী হাওয়া জয়ের পথে হাঁটছে নৌকা প্রার্থী, নড়বড়ে বিএনপি

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১, ১০:১৭ অপরাহ্ণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:


আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী শিবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনকে ঘিরে চলছে ব্যাপক প্রচার প্রচারনা, পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে গেছে পুরো পৌর এলাকা। প্রধান রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ মনোনিত উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ মনিরুল ইসলাম, বিএনপি মনোনিত ধানের শীষের প্রার্থী ওজিউল ইসলাম এবং জাতীয় পার্টির আফজাল হোসেন লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।
নির্বাচন ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে নির্বাচনী সমিকরণ পাল্টাতে শুরু করেছে। বিগত বছরে এ পৌরসভা জাময়াত বিএনপির দখলে থাকলেও আওয়ামীলীগের তরুণ প্রার্থী ও তার কর্মীরা জয়ের নাগাল পেতে মরিয়া হয়ে কাজ করছেন, বিশেষ করে বিপুল সংখ্যক নারী ও পুরুষ সমর্থকরা ভোটারদের দারে দারে নিরলস ভাবে ভোট প্রার্থনা করে চলেছেন। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন মনোনয়ন প্রত্যাশী ও তাদের সমর্থকরা। চলতি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে তা ইতি পূর্বে কোন নির্বাচনে দেখা যায়নি। অন্যদিকে বিএনপির প্রার্থীর চোখে পড়ার মত প্রচারণা না করায় নেতকর্মীরা নাখোশ। এছাড়া জামায়াতের প্রার্থী না থাকায় তাদের কর্মীদের ভোটের মাঠে আগ্রহ নেই।
জানা গেছে, শিবগঞ্জ পৌরসভা ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত। পুরুষ ভোটার ১৬৫৪৭ জন ও নারী ভোটার ১৬৪৩২ জন, মোট কমিশনার প্রার্থী ৪৫জন ও ভোট কেন্দ্র ১৫টি। সর্বশেষ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী কারীবুল হক রাজিন ১০ হাজার ৩শত ৫৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন, তার নিকটতম প্রতিদদ্বী মাওলানা জাফর আলী ৭ হাজার ভোট, বিএনপির শফিকুল ইসলাম প্রার্থী ৬হাজার ৭শত ভোট নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মঈন খান ২হাজার ৮শত ভোট পান। গত ৯ মাস আগে করোনাভাইরাস মহামারির ঢেউ শিবগঞ্জ উপজেলাকে এলোমেলো করে দেয়। কয়েক মাস পৌর এলাকার সাধারন মানুষ ঘরে বন্দী হয়ে যায়। সে সময় জিকে ফাউন্ডেশনের পরিচালক সৈয়দ মনিরুল ইসলাম টাকা, চাল, ডাল, আলু তেলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যদি নিয়ে পৌর এলাকায় সমগ্র দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ান। এতে করে স্থানীয় জনগনের ভালোবাসার মূর্ত প্রতিক হিসাবে পরিচিত সৈয়দ মনিরুল ইসলাম কে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা মনোনয়ন দেন। পৌর এলাকার সাধারণ মানুষ দলমত নির্বিশেষে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে জোরালো সর্মথন দিয়ে চলেছেন। পৌর এলাকার সনামধন্য ব্যবসায়ী মিটুল খান জানান চলতি পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে, বিশেষ করে নারী ভোটারেরা তার ভালোবাসায় শিক্ত হয়ে যে ভাবে প্রচারণা চালাচেছন তাতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জয়ের পথে হাঠছেন এতে কোন সন্দেহ নাই। শিবগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক গোলাম কিবরিয়া জানান আগামী ১৪ তারিখের নির্বাচনে দলীয় কোন বিভক্তি না থাকায় নেতা কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছেন, তাতে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন নৌকার প্রার্থী । ৫নং ওয়ার্ডের মৌসুমী খাতুন জানান, করোনাকালে শিবগঞ্জ পৌর এলাকায় জিকে ফাউন্ডেশনের পরিচালক সকল মানুষের পাশে যে ভাবে দাঁড়িয়েছেন তা ভুলার নয় আমরা ভোট দিয়ে ঋণ শোধ করব।
তিনি আরও বলেন, বিএনপির প্রার্থী ওজিউল ইসলাম ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী আফজাল হোসেন করোনাকালে কোন মানুষের পাশে দাঁড়ায়নি, এমনকি তাদের নেতারাও খোজ খবর নেয়নি। অন্যদিকে বসে নেই বিএনপি নেতা ওজিউল ইসলাম, তিনি দলীয় নেতা কর্মী নিয়ে মানুষের দারে দারে ভোট প্রার্থনা করে চলেছেন। তিনি জয়ের ব্যপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ মনিরুল ইসলাম জানান, আমি সকল সম্মানিত ভোটারদের সাথে দেখা করেছি এবং গত ২৫ বছরে পৌরবাসি নাগরিক সেবা থেকে বঞ্চিত ছিল। আমি নির্বাচিত হলে প্রসস্থ রাস্তা, ড্রেন, বিদ্যুৎ, বর্জ ব্যবস্থাপনা সুপেয় পানি, ছাত্র-ছাত্রীদের খেলার ব্যবস্থা, ১টি আধুনিক পার্ক এবং মাদক মুক্ত মডেল পৌরসভা গঠন করব। এছাড়াও দুর্নীতি মুক্ত শিবগঞ্জ পৌরসভা গড়ব এবং স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করব পাশাপাশি আর্থিক লেনদেন হবে ব্যাংক এর মাধ্যমে। আমার বিশ্বাস আগামি ১৪ তারিখ শিবগঞ্জ পৌরসভার ভোটারেরা বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবে।
সরজমিনে বিভিন্ন পেশার শতাধিক ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১নং, ২নং ৫নং, ৬নং, ৭নং, ৮ নং ও ৯নং ওয়ার্ডে নৌকার প্রার্থী শক্ত অবস্থানে রয়েছে। অন্যদিকে ৩ নং ও ৪নং ওয়ার্ডে ধানের শীষের প্রার্থী এগিয়ে আছেন ।