শিশুদের অপহরণ করে মঙ্গল গ্রহে আটকে রাখে নাসা?

আপডেট: জুলাই ৬, ২০১৭, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পৃথিবী থেকে শিশুদের অপহরণ করে ক্রীতদাস হিসেবে মঙ্গল গ্রহে পাচার করছে মার্কিন গবেষণা সংস্থা নাসা, সম্প্রতি এমন একটি অভিযোগে অবাক হয়েছে পুরো বিশ্ব।
গুজব ও বিতর্কিত বিষয় নিয়ে আলোচনার রেডিও অনুষ্ঠান ‘দ্য অ্যালাক্স জোন্স শো’ তে গত সপ্তাহে অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে নাসার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেন সাবেক সিআইএ কমকর্তা রবার্ট ডেভিড স্টিল। অনুষ্ঠানে তিনি দাবী করেন, শিশুদের অপহরণ করে গত দুই দশক ধরে মঙ্গল গ্রহে পাচার করে চলেছে নাসা।
রবার্ট বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি যে মঙ্গলে একটি কলোনি রয়েছে। সেখানে প্রচুর শিশু রয়েছে। তাদেরকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ক্রীতদাস হিসেবে তারা সেখানে কাজ করছে। কেননা মঙ্গলে গ্রহে পাচার হওয়ার পর ক্রীতহাস হয়ে থাকা ছাড়া তাদের কোনো উপায় থাকছে না।’
তার কথার সঙ্গে সহমত পোষন করে অনুষ্ঠান উপস্থাপক জোন্স বলেন, ‘মঙ্গল গ্রহে গবেষণায় নাসা কি করছে তা নাসা কখনোই খোলাসা করে না। সবকিছুই তারা ধামাচাপা দিয়ে রাখে। নাসার ৯০ শতাংশ মিশনই খুবই গোপনীয় রাখা হয়। আমি নাসার উচ্চ পর্যায়ের ইঞ্জিনিয়ারদের সঙ্গে কথা বলেছি, কিন্তু মঙ্গল গ্রহের মিশনের ব্যাপারে তাদের কোনো ধারণাই নেই। আসলে মঙ্গল গ্রহে গোপনে অনেক কিছুই করছে নাসা।’
নাসা সাধারণত গুজব বা প্রমাণহীন অভিযোগের ব্যাপারে বরাবরই নীরব থাকে। গুজব ও উদ্ভট দাবী প্রসঙ্গে খুব কমই তারা মুখ খুলে থাকে। তবে সাম্প্রতিক এই অভিযোগের ব্যাপারে নাসার এক মুখপাত্র গাই ওয়েবস্টার বলেন, ‘মঙ্গল গ্রহে কোনো মানুষ নেই। সেখানে আমাদের সক্রিয় রোবটযান রয়েছে। মঙ্গল গ্রহ নিয়ে অনেক ধরনের গুজব থাকলেও সেখানে কোনো মানুষের বসতি নেই।’
সৌরজগতের চতুর্থ গ্রহ হচ্ছে মঙ্গল গ্রহ এবং পৃথিবীর মতোই ভূ-ত্বক রয়েছে। পৃথিবী থেকে মঙ্গল গ্রহের সর্বনিম্ন দূরত্ব ৫৪.৬ মিলিয়ন কিলোমিটার, সর্বোচ্চ দূরত্ব ৪০১ মিলিয়ন কিলোমিটার। গড় দূরত্ব ২২৫ মিলিয়ন কিলোমিটার। ভবিষ্যতে বসবাসের জন্য পৃথিবীর বাহিরের গ্রহগুলোর মধ্যে মঙ্গল গ্রহ নিয়ে বিজ্ঞানীদের আগ্রহ সবচেয়ে বেশি। এ লক্ষ্য পূরণে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা বহু বছর ধরেই গ্রহটিতে রোবটযান পাঠিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে। তথ্যসূত্র : ডেইলি মেইল

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ