শিশু তাসিমের অঙ্গহানির ঘটনা তদন্তে ওসিকে নির্দেশ আদালতের

আপডেট: আগস্ট ৬, ২০২২, ৯:৩৯ অপরাহ্ণ

পাবনা প্রতিনিধি:


সঠিকভাবে ইনজেকশন পুশ না করায় ডায়রিয়া আক্রান্ত হওয়া শিশু তাসিম মোল্লার হাতের তিনটি আঙুল কেটে ফেলার ঘটনায় স্ব-প্রণোদিত হয়ে সদর থানার ওসিকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন পাবনার একটি আদালত।

গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচারের পর গত বৃহস্পতিবার (০৪ আগস্ট) পাবনার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত নং-১ এর বিচারক মোঃ সাইফুল ইসলাম এ আদেশ দেন। শনিবার (০৬ আগস্ট) বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের মাঝে জানাজানি হয়।

পুরো ঘটনা তদন্তে করে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বিচারকের আদেশের অনুলিপি থেকে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, ‘পাবনা সদর হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় শিশুর অঙ্গহানির অভিযোগ’ শিরোনামে গত ২ আগস্ট স্থানীয় একটি অনলাইন পোর্টালে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনটি অত্র আমলী আদালতের বিচারকের গোচরীভূত হয়েছে। উক্ত সংবাদ সঠিক হয়ে থাকলে তা দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ৩৩৬, ৩৩৭ ও ৩৩৮ ধারা অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ মর্মে অত্র আদালতের কাছে সন্তোষজনকভাবে প্রতীয়মান হয়।

তাই সার্বিক বিবেচনায় অফিসার ইনচার্জ, পাবনা সদর থানাকে বিষয়টি তদন্ত পূর্বক আগামী ২৪/০৯/২০২২ তারিখের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো। তদন্ত কাজে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করার জন্য তত্ত্বাবধায়ক পাবনা জেনারেল হাসপাতাল সহ সংশ্লিষ্ট সকল ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ প্রদান করা হলো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম শনিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে বলেন, আদালতের আদেশ এখনও হাতে পাইনি। পেলে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

উল্লেখ্য, চিকিৎসকের অবহেলা ও সঠিকভাবে ইনজেকশন পুশ না করায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়া এক বছরের শিশু তাসিম মোল্লার তিনটি আঙুল কেটে ফেলতে হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শিশু তাসিম মোল্লা পাবনা সদর উপজেলার গাছপাড়া এলাকার বাসিন্দা জাহিদুল ইসলাম জাহিদের ছেলে। গত ১০-১৮ জুন পর্যন্ত পাবনা জেনারেল হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিল তাসিম।

ঘটনার প্রতিকার চেয়ে পাবনার সিভিল সার্জনসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন শিশুটির পিতা জাহিদ। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ