শেষ মুহূর্তে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় নির্বাচনী প্রচারণা

আপডেট: নভেম্বর ২৭, ২০২১, ১২:৫৭ অপরাহ্ণ


চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:


আগামী ৩০ নভেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন। নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হচ্ছে। সকাল থেকেই প্রার্থীরা তাদের দলীয় কর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। ভোটারদের মন জয় করতে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রæতি। আর ভোটাররা বলছেন, যারা উন্নয়ন করবে তাদেরকেই ভোট দিবেন। এদিকে নির্বাচন কমিশন বলছে, সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের জন্য সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

জানা যায়, পৌরসভা নির্বাচনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় আগামী ৩০ নভেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ১৫টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৪ জন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন।
এরা হচ্ছেন, আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীক নিয়ে মো. মোখলেসুর রহমান, স্বতন্ত্র নারিকেল প্রতীকের বিএনপি নেতা মো. নজরুল ইসলাম, স্বতন্ত্র আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী মোবাইল প্রতীকের সামিউল হক লিটন ও স্বতন্ত্র জগ প্রতীকের প্রার্থী সাবেক শিবির নেতা মো. মোস্তাফিজুর রহামন মুুকল।

এছাড়া ১৫টি ওয়ার্ডে ২১ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও ৮৮ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন। এই পৌরসভায় মোট ভোটার ১ লক্ষ ৪৫ হাজার ৪৯৭ জন। এদের মধ্যে ৭৪ হাজার ৬৫ জন নারী ও পুরুষ ভোটার রয়েছে ৭১ হাজার ৪’শ ৩২ জন।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে পৌরসভা নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা। সকাল থেকেই প্রার্থীরা তাদের দলীয় কর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে মন জয় করতে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রæতি। আর ভোটাররা বলছেন, যিনি যোগ্য ও পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়ন করবেন তাকেই ভোট দিবেন।

আওয়ামী লীগ মনোনিত মেয়র প্রার্থী মো. মোখলেসুর রহমান বলেন, আমাদের অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা এলাকার উন্নয়ন এবং মানুষের সেবা করার জন্য পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন। সবার দোয়া, ভালবাসা আর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি। সেই সাথে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন বলে শতভাগ আশাবাদী। নারিকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বিএনপি নেতা মো. নজরুল ইসলাম তিনিও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি ভোটারদের কাছে ভোট চাইছেন এবং পৌরবাসীর মৌলিক অধিকার বাস্তবায়নে কাজ করার প্রতিশ্রæতি ব্যক্ত করেন। অপরদিকে, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মোবাইল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী সামিউল হক লিটন প্রতিটি এলাকায় ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। এছাড়া, জগ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক শিবির নেতা মো. মোস্তাফিজুর রহমান মুকুলের প্রচারণা না থাকলেও তার কর্মীবাহিনী গোপনে তাদের সমমনাদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ভোট চাইছেন।