সংগঠন বিরোধী ও অপরাধের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে নওগাঁয় ছাত্রলীগের পাঁচ নেতা বহিস্কার

আপডেট: জুলাই ৩০, ২০২১, ৫:৫৮ অপরাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি:


নওগাঁয় সংগঠনের আদর্শ, শৃঙ্খলা পরিপন্থী ও অপরাধ কার্যকলাপের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ছাত্রলীগের পাঁচ নেতা-কর্মীকে সংগঠন থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। একই সাথে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আমানুজ্জামান সিউলকে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়া হয়েছে। উপযুক্ত কারণসহ লিখিতভাবে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দপ্তর সেলে জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রকরা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বিকেলে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারন সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত পাঠানো বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তাদের বহিস্কার করা হয়। ওইদিন সন্ধ্যা ৭টায় নওগাঁ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাব্বির রহমান রেজভী বহিস্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
বহিস্কৃত পাঁচ ছাত্রলীগ নেতারা হলেন- নওগাঁ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শীতল খান, নওগাঁ সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রহমান আরমান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হুজাইফা তানভির, উপ-প্রচার সম্পাদক আব্দুল সিফাত সাদিক (১৬) ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ফজল রাব্বি। এদের মধ্যে শীতল খাঁনকে একটি হত্যাকাণ্ডের সাথে এবং অপর চার জন প্রতিপক্ষ ছাত্রলীগ কর্মীকে মারপিটের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে বহিস্কার করা হয়েছে।
বহিস্কার আদেশের উদ্ধৃতি দিয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাব্বির রহমান রেজভী জানান গত ২৯ জুন রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে শহরের মুক্তির মোড় আশির্বাদ কম্পিউটার দোকানের সামনে ছাত্রলীগ নেতা মাসুদ রহমান আরমান, হুজাইফা তানভির, আব্দুল সিফাত সাদিক, ফজল রাব্বিসহ ১০/১৫ জন লাঠিসোঠা ও ছুরি নিয়ে নওগাঁ পৌর ছাত্রলীগের কর্মী শাহাদৎ হোসেন তুষারের উপর হামলা চালায়। তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তুষারের মাথা ও ডান বাহুতে আঘাত করে গুরুতর আহতাবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) নেওয়া হয়। ঘটনায় পরদিন শাহাদৎ হোসেন তুষার এর মা ইসমত আরা বাদি হয়ে সদর থানায় সাত জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ১০/১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।
এছাড়া গত ২৮ মে নওগাঁ শহরের মুক্তির মোড়ে ‘ইডেন থাই এন্ড চাইনিজ রেস্টুরেন্ট’ এর নৈশ্য প্রহরী শারীরিক প্রতিবন্ধী আতাউর রহমান (৫০) কে হত্যার ঘটনার সাথে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শীতল খান জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। এসব বিষয় নিয়ে জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে গত ৩ জুলাই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ বরাবর একটি অভিযোগ করা হয়েছিল। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ছাত্রলীগে রাজনীতিতে অপরাধীদের কোন প্রশ্রয় দিবেনা মর্মে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ তাদের বহিস্কার করেছে বলে জানান জেলা সভাপতি।