সংরক্ষিত নারী আসনে রাজশাহীসহ পাঁচ জেলার কেউ নেই!

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২৪, ১০:৩৯ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের ৪৮ জন প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। তবে রাজশাহী বিভাগের পাঁচ জেলায় কাউকে মনোনয়ন দেয়নি আওয়ামী লীগ।
সংরক্ষিত আসনে রাজশাহী বিভাগে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছের চারজন। এর মধ্যে জয়পুরহাটের পেয়েছেন দুইজন, নাটোর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন করে। বাকি পাঁচটি জেলায় কাউকে মনোনয়ন দেয়নি আওয়ামী লীগ। এর মধ্যে রাজশাহী-বগুড়া-পাবনা-নওগাঁ ও জয়পুরহাট আছে। একাদশ জাতীয় নির্বাচনে রাজশাহী-পাবনা-বগুড়া থেকে সংসদ সদস্য ছিলেন।

সংরক্ষিত নারী আসনে জয়পুরহাট থেকে পেয়েছেন রোকেয়া সুলতানা, সুলতানা মলি. নাটোর থেকে পেয়েছেন প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল কুদ্দুসের মেয়ে কোহেলী কুদ্দুস ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে পেয়েছেন ব্যবসায়ী জারা জাবীন মাহবুব।

সংসদের সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সঙ্গে দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মতবিনিময় করেন। পরে তার সভাপতিত্বে গণভবনে দলটির সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়।

মনোনয়ন না পাওয়া নিয়ে কোনো নেতা মন্তব্য করতে চাচ্ছেন না। তারা বলছেন, দলীয় প্রধানের সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত। তিনি যা ভালো বুঝেন তাই করেছেন।
আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ডা. রোকেয়া সুলতানা। আওয়ামী লীগ বিরোধী দলে থাকার সময় প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে যেমন তৎপর ছিলেন। দল ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) নেত্রী ছিলেন তিনি। জয়পুরহাট সদরের বানিয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি জয়পুরহাট-১ (সদর ও পাঁচবিবি) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

সুলতানা মলি আক্কেলপুরের পূর্ব আমুট্ট গ্রামের বাসিন্দা। তিনি শহীদ মুজিবর রহমানের (আক্কেলপুরী) সন্তান। জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ছাড়াও এই নেত্রী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদে রয়েছেন। এবারই প্রথম তিনি সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত আবদুল কুদ্দুসের কন্যা কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি। তিনি তার বাবার আসন থেকে উপনির্বাচনে ও জাতীয় নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

শিক্ষা জীবনে তিনি রাজশাহী কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজকর্ম বিষয়ে অনার্সসহ এমএসএস ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে ঢাকা প্রাইম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি ও এলএলএম ডিগ্রী লাভ করেন। রাজনীতির পাশাপাশি বর্তমানে তিনি ঢাকা জজকোর্টে ওকালতি পেশার সাথে জরিত রয়েছেন। এছাড়াও তিনি ছাত্রলীগের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি এখন যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন জারা জাবিন মাহবুব। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের সহকারি প্রেস সচিব কাইয়ুম রেজা চৌধুরী মেয়ে। জারা জাবিন বর্তমানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। তিনি নারী উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ী। তার দাদা মোর্তুজা রেজা চৌধুরী ছিলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত রাজনীতিক, সাবেক অর্থমন্ত্রী (তৎকালীন পাকিস্তান সরকার), তার চাচা মাইনুর রেজা চৌধুরী ছিলেন বাংলাদেশের সাবেক প্রধান বিচারপতি, চাচা সালমান এফ রহমান এমপি, ঢাকা-১ প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ-বিষয়ক-উপদেষ্টা।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, দ্বাদশ সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার তারিখ আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি রবিবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে ১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারি। আপিল দায়ের ২২ ফেব্রুয়ারি এবং আপিল নিষ্পত্তি হবে ২৪ ফেব্রুয়ারি। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ ফেব্রুয়ারি, প্রতীক বরাদ্দ ২৭ ফেব্রুয়ারি এবং ভোটগ্রহণ হবে ১৪ মার্চ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ