সতীর্থকে মেরে এক বছর নিষিদ্ধ শাহাদাত!

আপডেট: নভেম্বর ১৯, ২০১৯, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অপরাধে নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছিলেন পেসার শাদাহাত হোসেন। এমন কাণ্ডের পরেও নিজেকে শোধরাতে পারেননি। জাতীয় লিগে নিজ দলের সতীর্থ এক ক্রিকেটারকে পিটিয়ে নতুন করে বিতর্কে জড়িয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক এই পেসার। এই ঘটনায় তাকে এক বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।
ঘটনাটি ঘটেছে এনসিএলে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে খেলার দ্বিতীয় দিন। ঢাকা বিভাগ ও খুলনা বিভাগের মধ্যকার খেলায় সতীর্থ আরাফাত সানি জুনিয়রকে বল শাইন করে দিতে বলেছিলেন শাহাদাত। সানি অনীহা প্রকাশ করলে লাঞ্চের সময়ই সানির ওপর শারীরিক হামলা চালান তিনি। বাকিরা এসে তখন রক্ষা করেন সানিকে।
এ ঘটনায় বিসিবির টুর্নামেন্ট কমিটির এক কর্মকর্তা জানান, ‘খুলনা থেকে শাহাদাতকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিসিবির কোড অব কন্ডাক্টের ৪ মাত্রা ভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে। এ ধারায় যে কেউ সব ধরনের ক্রিকেট থেকে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ থাকে। একই সঙ্গে জরিমানা ৫০ হাজার টাকা। এখন রিপোর্ট বিসিবির টেকনিক্যাল কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে। তারাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। তবে চলমান এনসিএলে সে খেলতে পারছে না।’
ম্যাচ রেফারি আখতার আহমেদও স্বীকার করেন ঘটনার সত্যতা, ‘এটা বড় ধরনের অপরাধ। রিপোর্ট বিসিবির কাছে পাঠানো হয়েছে।’
শাহাদাত নিজেও স্বীকার করেছেন ঘটনার কথা। মেজাজ হারিয়ে ফেলাতেই এমন কাণ্ড ঘটেছে বলে স্বীকার করেন তিনি, ‘চলমান এনসিএলে আমি খেলছি না। কারণ আমাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জানি না ভবিষ্যতে কী হবে।’
কিন্তু কেন মেজাজ হারালেন এভাবে? এমন প্রশ্নে তিনি জানান, ‘এটা সত্যি আমি নিজের মেজাজ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারিনি। তবে সানি আমার সঙ্গে বাজে ব্যবহার করেছে। যখন বল শাইন করতে বলেছি বাজেভাবে সে উত্তর দিয়েছে, যা আমার পক্ষে হজম করা কঠিন ছিল।’