সমুদ্র সৈকতে ভেসে উঠল চোখ-মুখহীন প্রাণীর মৃতদেহ

আপডেট: জুলাই ৬, ২০১৭, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পৃথিবীর বয়স কম হয়নি। তবু এখনও তার বুকে রয়ে গিয়েছে অনেক অনাবিষ্কৃত রহস্য। আর সেই রহস্য ভেদ করতে মানুষের জুড়ি মেলা ভার।
এখনও বিশ্বে এমন নানা জিনিস রয়ে গিয়েছে, যা মানুষকে অবাক করে। এবার অদ্ভুত এক প্রাণীর খোঁজ মিলল ক্যালিফোর্নিয়ার সমুদ্র সৈকতে। মালিবুর লিও ক্যারিলো সমুদ্র সৈকতে ভেসে উঠল অদ্ভুত চেহারার একটি প্রাণীর মৃহদেহ। যার চোখ ও মুখ কিছুই নেই। শুধু শরীরের এক প্রান্ত থেকে বেরিয়ে রয়েছে দু’টি বৃহদাকার মাংসপি-। জীবটি আসলে কোন প্রজাতির, তাও বোঝা যাচ্ছে না। সৈকতে উপস্থিত এক ব্যক্তির প্রথমে এই বিরাটাকৃতি জীবটি চোখে পড়ে। দেখে বেশ অবাক হয়ে যান তিনি। মোবাইলে ছবি তুলে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করতেই শুরু হয় আলোচনা। কেউই এধরনের প্রাণী আগে দেখেছেন বলে মনে করতে পারলেন না। তবে প্রাণীর মৃতদেহ সমুদ্র উপকূলে ভেসে ওঠায় প্রাথমিকভাবে মনে করা হয়, হয়তো এটি জলেরই প্রাণী। এক নেটিজেন অবশ্য জানাচ্ছেন, আমেরিকার পশ্চিম উপকূলে অনেকটা এই শারীরিক গঠনের জীবই দেখতে পাওয়া যায়। তবে ছবির জীবটি বেশ কিছুদিন আগে মারা গিয়েছে বলে মনে হয়। সেই কারণেই তার দেহের একাধিক অঙ্গ ক্ষয়ে গিয়েছে। গভীর সমুদ্রের শ্যাওলা জাতীয় উদ্ভিদ খেয়েই বেঁচে থাকে এই প্রাণী। যার ফলে তাদের গায়ের রং লালচে ধরনের হয়ে থাকে। যিনি পোস্টটি করেছেন, তাঁর দাবি, জীবটি ৫ ইঞ্চি চওড়া এবং ওজন ৩.২ কেজি। প্রাণীটির নাম এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি।
তবে এমন অদ্ভুত প্রাণী যে এই প্রথমবার সৈকতে ভেসে উঠল, এমনটা নয়। চলতি বছরই পশ্চিম ইন্দোনেশিয়ার এক দ্বীপের বাসিন্দারা অতিকায় এক জন্তুর মৃতদেহ দেখেছিলেন। জানা গিয়েছিল, সেই প্রাণীর নাম আসরুল টুয়ানাকোটা। লাল জল দেখেই সন্দেহ হয় অধিবাসীদের। সামুদ্রিক প্রাণীটি লম্বায় ছিল প্রায় ৫০ ফুট। পৃথিবীতে যে আজও বহু বিস্ময় অবশিষ্ট আছে, এইসব মৃত জন্তুই যেন মানুষকে তা মনে করিয়ে দেয় বারবার।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন