সম্পূর্ণ সুরক্ষিত হবে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ সীমান্ত, দু’বছর সময় দিলেন অমিত শাহ

আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০২৩, ১২:৫৪ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক :


ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানিয়েছেন পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের দুটি প্রধান সীমান্ত আগামী দু বছরের মধ্যে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত করা হবে। তিনি আরো জানান, এই দুটি সীমান্ত বরাবর প্রায় ৬০ কিলোমিটার বিস্তৃত ফাঁকগুলি বন্ধ করার কাজ চলছে। শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের (বিএসএফ) ৫৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানের কুচকাওয়াজ থেকে অভিবাদন গ্রহণের পর এ কথা বলেন অমিত শাহ।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে ৯ বছরে ভারত-পাকিস্তান এবং ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের প্রায় ৫৬০ কিলোমিটারের মধ্যে বেড়া দেয়া হয়েছে এবং ফাঁকগুলো বন্ধ করেছে। ভারতের পশ্চিম ও পূর্ব দিকের এ দুটি সীমান্তের সব ফাঁক বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে।

ভারত-পাকিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্তের যেখানে বেড়া তৈরি করা খুব কঠিন, সেখানেও উন্নত প্রযুক্তির সাহায্যে গ্যাজেট ব্যবহার করা হবে। ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে ২২৯০ কিলোমিটার এবং ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ৪০৯৬ কিলোমিটার এলাকায় দীর্ঘ নদী, পাহাড়ি এলাকা, জলাভূমি রয়েছে। সেখানে বেড়া তৈরি করা কঠিন। তবে এসব এলাকায় উন্নত প্রযুক্তির গ্যাজেট ব্যবহৃত হবে।

অমিত শাহের মত, সীমান্ত সুরক্ষিত না থাকলে একটি দেশের উন্নতি হয় না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে বিজেপি সরকার সে কাজও করে দেখাবে বলে আত্মবিশ্বাসী তিনি। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দেয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ৪৫২ টি নতুন সীমান্ত চৌকি এবং ৫১০টি পর্যবেক্ষণ টাওয়ার তৈরি হয়েছে। ৬৩৭টি সীমান্ত পোস্টে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। আগামী দুই বছরের মধ্যে ওইসব সীমান্ত সম্পূর্ণ সুরক্ষিত হবে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ