সাঁথিয়ায় যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

সাঁথিয়া প্রতিনিধি


পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার মরিচপুরান গ্রামে এক সন্তানের জননী শারমীন খাতুন (২২) নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী ও পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে। গত শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ গতকাল শনিবার কাশিনাথপুর বাজার এলাকা থেকে অভিযুক্ত স্বামী আবদুুল করিমকে (৪০) গ্রেফতার করেছে। আবদুল করিম উপজেলার কাশীনাথপুর ইউনিয়নের মরিচপুরান গ্রামের মনজেল সেখের ছেলে। শারমিনের ইয়াছিন নামের দুই বছরের একটি শিশু সন্তান রয়েছে।
থানায় দায়ের করা অভিযোগের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ৪-৫ বছর আগে সাঁথিয়া উপজেলার কাশীনাথপুর ইউনিয়নের কড়িয়াল গ্রামের আবদুুর রশিদের মেয়ে শারমীনের সাথে আবদুল করিমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক হিসেবে এক লাখ টাকার দাবি জানাতে থাকে আবদুুল করিম ও তার পরিবারের লোকজন।
যৌতুকের দাবিতে শারমিনের উপর স্বামী ও শশুর বাড়ির লোকজন প্রায়ই অত্যাচার চালাত। নির্যাতনের মাত্রা দিনের পর দিন বাড়তেই থাকে। এদিকে গত শুক্রবার রাতে শারমিনকে তার স্বামী ও শশুর বাড়ির লোকজন ব্যাপক মারধর করে। এক পর্যায়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে একে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিতে তার মরদেহ ঘরের আড়ার সাথে ঝুলিয়ে রেখে বাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে নিহতের বাবার বাড়ির লোকজন ঘটনাটি পুলিশকে জানায়।
সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)হাসান ইনাম জানান, পুলিশ খবর পেয়ে শুক্রবার রাতেই লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। গতকাল শনিবার ময়না তদন্তের জন্য লাশ পাবনা মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।
নিহতের বাবা আবদুুর রশিদ বাদি হয়ে নিহতের স্বামী আবদুুল করিমসহ ৩ জনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ