সাকিব-মিরাজদের প্রেরণা হতে পারেন হল্যান্ড

আপডেট: আগস্ট ১৮, ২০১৭, ১:৪৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশের কন্ডিশন বিবেচনায় অস্ট্রেলিয়া দলে তৃতীয় একজন স্পিনার খেলানোর পরামর্শ দিয়েছেন অ্যাডাম গিলক্রিস্ট। এ ছাড়া দুই টেস্টের সিরিজ জিততে স্বাগতিকদের স্পিন আক্রমণ ভোঁতা করে দেওয়ার যে বিকল্প নেই, এ কথাও স্মিথদের বারবার স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যম। এশিয়ার স্বাদ পেতে অস্ট্রেলিয়া ভেন্যু হিসেবে বেছে নিয়েছিল ডারউইন। আর সেখানকার প্রস্তুতি ম্যাচে ভিক্টোরিয়ার স্পিনার জন হল্যান্ড যা করেছেন, সেটি অনুপ্রেরণা হয়ে আসতে পারে সাকিব-মিরাজদের জন্য।
নাথান লায়ন, অ্যাশটন অ্যাগার, মিচেল সোয়েপসনের মতো প্রতিষ্ঠিত স্পিনাররা হাত ঘোরানোর পাশাপাশি বোলিং করেছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, এমনকি স্টিভেন স্মিথও। এঁদের কেউই হল্যান্ডের মতো জাদু দেখাতে পারেননি। ডেভিড ওয়ার্নার একাদশের হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন তিনি। কিন্তু তৃতীয় দিন সকালে হাত ঘুরিয়েছেন স্মিথ একাদশের হয়ে। মাত্র ১১ বলের ব্যবধানে ১ রানে তাঁর শিকার ৪ উইকেট!
ঢাকা ও চট্টগ্রামের স্পিনবান্ধব উইকেট মাথায় রেখে মারারা ওভালের ২২ গজ প্রস্তুত করেছিলেন পিচ কিউরেটর। হল্যান্ড এ সুবিধা দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছেন। ১.৫ ওভারের স্পেলে হিলটন কার্টরাইট, অ্যাডাম জাম্পা, পিটার হ্যান্ডসকম্ব ও জ্যাক ওয়েদারল্যান্ডকে তুলে নেন তিনি। আগের ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান হ্যান্ডসকম্ব (২) বাদে বাকি তিনজনই কোনো রান করতে পারেননি।
এই চারজনের দুজন আছেন অস্ট্রেলিয়া দলে। তবে স্পিনের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার এই দলটার দুর্বলতা গোপন কিছু নয়। গত শ্রীলঙ্কা ও ভারত সফরে টেস্টে স্পিনারদের বিরুদ্ধে ধুঁকেছে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা। মাত্র ২ টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতাপুষ্ট হল্যান্ডের স্পিন যেন সেটাই নতুন করে মনে করিয়ে দিল। এখন ঘরের মাঠে সাকিব-মিরাজরা কী করতে পারেন পারেন, সেটাই দেখার। স্মিথের দলকে স্পিন জালে ফাঁসাতে হল্যান্ডই হতে পারেন সাকিবদের প্রেরণা। সূত্র: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ