সাত মাস ধরে বন্ধ থাকার পরে ফের ভারত-পাক কথা শুরুর ভাবনা

আপডেট: মার্চ ৪, ২০১৭, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



সিন্ধু জলচুক্তি নিয়ে বৈঠকের সূত্রে ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে গত সাত মাস ধরে বন্ধ থাকা আলোচনা ফের শুরু হতে চলেছে। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর, চলতি মাসের শেষে পাকিস্তানের সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা দিল্লি আসবেন। এই চুক্তি নিয়ে দু’দেশের মধ্যে যে সব সমস্যা রয়েছে তা নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হবে।
কূটনীতিকদের মতে, এই বৈঠকে সিন্ধু জলচুক্তি নিয়ে পাকিস্তানের অসন্তোষ এবং ভারতের অবস্থান  বদলে যাবে না। কিন্তু কূটনৈতিক প্রশ্নে এর অন্য গুরুত্ব রয়েছে। উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনের পরে পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনায় ফেরার প্রক্রিয়া শুরু করতে চাইছে মোদী সরকার। তবে গোড়াতেই বিদেশসচিব পর্যায়ের শীর্ষ বৈঠকের কথা ভাবা হয়নি। উরি হামলা ও সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পরে চড়ে যাওয়া তিক্ততার পারদ কমাতে ধাপে ধাপে পদক্ষেপ করার কথাই আপাতত ভাবছে দিল্লি। তাই সিন্ধু জলচুক্তিকে কেন্দ্র করে দু’দেশের মধ্যে আলোচনা শুরু করতে চাইছে মোদী সরকার।
জুনের ৭ তারিখ কাজাখস্তানে বসছে সাংহাই কোঅপারেশন সামিট (এসসিও সম্মেলন)। ওই বৈঠকে  উপস্থিত থাকার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের। এসসিও-তে এ বার স্থায়ী সদস্যপদ পেতে চলেছে এই দুই প্রতিবেশী দেশ। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে খবর, পাকিস্তানের তরফ থেকে প্রবল চেষ্টা চলছে যাতে সেখানে এই দুই নেতার মধ্যে পার্শ্ববৈঠকের আয়োজন করা সম্ভব হয়। সেই শীর্ষ বৈঠকের জন্য একটি পটভূমি তৈরি করতেও আগ্রহী ইসলামাবাদ।
সিন্ধু জলচুক্তির বিষয়টি দু’দেশের জন্যই প্রতীকি। উরি হামলার পরে ৫৬ বছরের পুরনো এই চুক্তি পুনর্বিবেচনার হুমকি দিয়েছিল দিল্লি। এক কথায়, পাকিস্তানকে সিন্ধু নদ এবং তার পাঁচ উপনদীর জল দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিল ভারত। সাউথ ব্লকের কর্তাদের মতে, এখন সেটা নিয়ে আলোচনার টেবিলে বসলে ইতিবাচক পরিবেশ তৈরি করা যাবে।- আনন্দবাজার পত্রিকা