সান্তাহারে পত্রিকা এজেন্টের দোকান আগুনে পুড়ে ছাই

আপডেট: অক্টোবর ৩০, ২০২৩, ১০:১৮ অপরাহ্ণ


আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি:


বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহারে জুয়েল হোসেন নামের এক পত্রিকা এজেন্টের ‘ভাঙারি ব্যবসার’ দোকানে আগুন লেগে প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের মালগুদাম এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট প্রায় একঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে দোকান ও দোকানের সকল মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ভাঙারি ব্যবসায়ী জুয়েল হোসেন পৌর শহরের লকো পশ্চিম কলোনীর বাসিন্দা এবং বিভিন্ন জাতীয় ও আঞ্চলিক পত্রিকার এজেন্ট। তিনি বলেন, করোনার পর থেকে বাজারে আগের মতো আর ছাপা পত্রিকা চলেনা। এ কারণে পত্রিকা বিলির পাশাপাশি বিকল্প ব্যবসা হিসেবে সম্প্রতি পৌর শহরের মালগুদাম এলাকায় রেলওয়ে সেডের উত্তর পশ্চিম পাশের্^ টিন ও বাঁশ দিয়ে ঘর নির্মাণ করে সেখানে ভাঙারি ব্যবসা করেন। সেখানে বৈদ্যুতিক সংযোগও নেওয়া হয়নি এখনো। প্রতিদিনের মতো রোববার রাতে ঘরের মধ্যে পুরাতন পত্রিকা, প্লাষ্টিকের ফেলনা জিনিস ও মালামাল বহনের জন্য দুইটি চার্জার চালিত অটোভ্যান রেখেছিলেন। ওই দিন রাত সাড়ে ১২টার দিকে স্থানিয়রা হঠাৎ তার দোকান ঘরে আগুন দেখতে পেয়ে তাকে ফোন করে বিষয়টি জানান এবং তারা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। দোকান ঘরে প্লাষ্টিকের মালামাল থাকায় মুহূর্তেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ফলে দ্রুত তার দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তিনি দাবি করেন, এতে প্রায় দেড় লক্ষাধীক টাকার ক্ষতির মুখে পড়েছেন। শত্রুতামূলকভাবে কেউ এই আগুন লেগে দিয়েছেন।

আদমদীঘি ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ রুহুল আমীন জানান, আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে একঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ভাঙাড়ি দোকানের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ধারনা করা হচ্ছে, দোকানের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় কেউ হয়তো বিড়ি-সিগারেট খেয়ে তা ওই দোকানে ফেলার কারনে আগুন লাগার এই ঘটনা ঘটতে পারে। দোকানের মধ্যে কেউ অবস্থান না করায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।