সাপাহারে নিরুদ্দেশ দুই স্কুলছাত্র চার দিনেও উদ্ধার হয় নি

আপডেট: জুলাই ২৫, ২০১৭, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি


নওগাঁর সাপাহারে স্কুল পড়–য়া দুই শিক্ষার্থী নিখোঁজের চার দিনেও উদ্ধার করতে পারে নি পুলিশ। গত শুক্রবার সকাল থেকে রহস্যজনকভাবে তারা নিখোঁজ হয়। ওই দিন সকালে অনুপম প্রাইভেট শিক্ষকের নিকট ও দূর্জয় নওগাঁ বালুডাঙ্গা খালার বাড়ি যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর থেকেই তাদের কোন সন্ধান পাওয়া যায় নি। এ ঘটনায় সাপাহার থানায় পৃথক দুইটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।
নিখোঁজ আহসানুল আলম অনুপম (১৫) সাপাহার পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাজেদুল আলমের ছেলে এবং নাইমুর রহমান দূর্জয় (১৫) মির্জাপুর উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জালাল উদ্দীনের ছেলে। দুইজনই নওগাঁ জেলার সাপাহার পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ও পরস্পর ঘনিষ্ট বন্ধু এবং তারা পরিবারের সঙ্গে সাপাহার উপজেলা সদরের প্রফেসর পাড়ায় বসবাস করতো।
জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ৬টায় অনুপম প্রাইভেট শিক্ষকের নিকট পড়ার জন্য বের হয়। এরপর সন্ধ্যা পর্যন্ত আর অনুপম ফিরে আসে নি। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুজি করে তার সন্ধান পান নি। তার খোঁজ নিতে বার বার মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরে জানা যায়, সে তার বন্ধু দূর্জয়ের সঙ্গে নওগাঁয় এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গেছে। কিন্তু সেখানে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তারা সেখানেও যায় নি। এরপর অনেক খোঁজাখুজি করে তার কোন সন্ধান পাওয়া যায় নি।
অনুপম ও দূর্জয়ের সহপাঠি সাজ্জাদ হোসেন ও আক্তার জাহান জানায়, তার দুইজনেই মেধাবী ছাত্র এবং তারা সব সময় একসঙ্গে চলাফেরা এবং নিয়মিত নামাজ রোজাসহ ইসলাম ধর্মের সকল কর্মকাণ্ড পালন করতেন।
দুর্জয়ের বাবা জালাল উদ্দিন জানান, সে খুব ভদ্র এবং ন¤্র স্বভাবের। সব সময় নামাজ ও কোরআন পাঠ করতো। সে তার সমস্ত জামাকাপড় নিয়ে চলে যাওয়াতে মনে করছি সে আর ফিরে আসবে না। তার মা মারা যাবার পর থেকে তেমন কারো সঙ্গে মিশতো না, একা একা থাকতো। হঠাৎ করে সে কেন নিরুদ্দেশ হওয়ায় বিষয়টি স্পষ্ট নয় কারো কাছে।
অনুপমের চাচাতো ভাই মোস্তাফিজুর রহমান জানান, দু’জনেই খুব ভদ্র এবং ন¤্র স্বভাবের। তারা যেন নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত না হয়, সে বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
সাপাহার পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও অনুপমের বাবা সাজেদুল ইসলাম জানান, অনুপম গত দুই মাস থেকে ইসলাম ধর্মের বিষয়ে বেশি আশক্ত হয়ে পড়ে। পরিবারের অজান্তে এ সময়ের মধ্যে বেশি কিছু ইসলাম সম্পর্কিত বই কিনে পড়াশুনা করে। ঘটনাটি তখনও বুঝতে পারি নি। তারা নিখোঁজ হওয়ারপর তার ঘরে বেশ কিছু ইসলাম সম্পর্কিত বই পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি দায়ের করা হলেও সোমবার পর্যন্ত পুলিশ তাদের উদ্ধার করতে পারে নি। এতে তারা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন।
এ বিষয়ে সাপাহার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামছুল আলম জানান, অনুপম ও দূর্জয়ের নিখোঁজের ঘটনায় থানায় পৃথক দুইটি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে। তাদের উদ্ধারে একাধিক টিম কাজ করছে বলে দাবি করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ